শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘দত্তক কন্যা’ হানিপ্রীতকেও ধর্ষণ করেছিলেন রাম রহিম: গাড়িচালক



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত ভারতের বিতর্কিত ‘ধর্মগুরু’ গুরমিত সিং রাম রহিমের বিরুদ্ধে এবার উঠলো আরেকটি অভিযোগ। এই ‘বাবার’ বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে শুরুর দিকে তিনি তার ‘দত্তক কন্যা’ হানিপ্রীত ইনসানকেও ধর্ষণ করেছিলেন।
রাম রহিমের গাড়িচালক খাট্টা সিং ও তার ছেলে গুরদাস সিং এমনই অভিযোগ করেছেন। এই দুইজনের দাবি, হানিপ্রীত ‘বাবার’ ডেরায় আসার পর বাবার দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। তখন হানিপ্রীত ‘বাবার’ এতো ঘনিষ্ঠ ছিলেন না।
এই বাপ-ছেলে জানায়, হানিপ্রীতকে একদিন বাবার গোপন ‘গুফায়’ (গুহা) যেতে দেখেছিলেন তারা। পরে হানিপ্রীতকে ওই গুফা থেকে কাঁদতে কাঁদতে বের হতে দেখেছিলেন তারা। পরবর্তীতে এই ঘটনাকে ঢাল করে হানিপ্রীত রাম রহিমের প্রিয়জনে পরিণত হন।
জানা গেছে, ২৫ সেপ্টেম্বর সোমবার আগাম জামিন নিতে দিল্লির আদালতে পলাতক হানিপ্রীত ইনসান আবেদন করেছেন। ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার এর শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।
এদিকে ১৮ সেপ্টেম্বর সোমবার হানিপ্রীত ইনসানকে মোস্ট ওয়ান্টেড ঘোষণা করেছে ভারতের হারিয়ানা পুলিশ। এছাড়াও রাম রহিমের পালিত এই কন্যাকে ধরিয়ে দিলে পরিচয় গোপন রাখা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তার সম্পর্কে যেকোনো তথ্য জানাতে ফোন নম্বর, হোয়াটস অ্যাপ, এবং ইমেইল আইডি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।
২২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার এক সংবাদসম্মেলনে হানিপ্রীতের প্রাক্তন স্বামী বিশ্বাস এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, তিনি নিজ চোখে রাম রহিম আর হানিপ্রীতকে অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত অবস্থায় দেখেছেন।
এর আগে, জেলে পালিতকন্যার সঙ্গে রাত্রিবাসের আবদার করেছিলেন ধর্ষণের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত স্বঘোষিত ধর্মগুরু রাম রহিম। তা প্রত্যাখ্যান করেছিল জেল কর্তৃপক্ষ।
উল্লেখ্য, দুইজন ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে ২০০২ সালে হওয়া মামলায় ১০ বছর করে মোট ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে রাম রহিমকে। একইসঙ্গে ৩০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।
এর আগে ২৫ আগস্ট শুক্রবার দোষী সাব্যস্ত করে রায় দেওয়া হলে নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় রাম রহিম সিংয়ের ভক্তরা। এতে প্রায় ৩৬ জন নিহত হয়।
সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

 

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত