মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নবীগঞ্জে আইনগাঁও সড়কের বেহালদশা,সাধারন মানুষ চরম ভোগান্তিতে



নবীগঞ্জ প্রতিনিধি::নবীগঞ্জ পৌরসভার শিবপাশা থেকে আইনগাঁও পর্যন্ত পাকা রাস্তাটি খানা-খন্দে ভরে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার সাধারন মানুষ । ৯ কি.মি দৈর্ঘ্য রাস্তাটি দিন দিন খানা খন্দ ও ভেঙে যাওয়ায় রাস্থাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে । মহাসড়কের সাথে উপজেলার সংযোগ সড়ক হওয়ায় এই রাস্তাটিটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ । এই সড়ক দিয়ে দিবা-রাত্রী ছোট বড় হাজারো যানবাহন চলাচল করে। দিনারপুর পরগনা ও বাউসা ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের চলাচলের জন্য একমাত্র যোগাযোগ ব্যবস্থা এই রাস্তাটি খানা-খন্দে ভরে যাওয়ায় প্রায়ই দূর্ঘটনা ঘটছে । রাস্তাটি দীর্ঘদিন যাবৎ সংস্কার কাজ না করায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে । এতে সাধারন জনগণ ও স্কুল কলেজগামী ছাত্র/ছাত্রীরা পড়েন চরম ভোগান্তিতে ।

একটু বৃষ্টি হলেই এ অঞ্চলের মানুষ নানান প্রতিকুলতা আর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাফেরা করতে হচ্ছে ।
হরিধরপুর শাহ তাজ উদ্দিন (রহ.) উচ্চ বিদ্যালয়, ধুলচাতল তাজিয়া মোবাশ্বীরিয়া আলিম মাদ্রাসা, দিনারপুর কলেজ, দিনারপুর উচ্চ বিদ্যালয় সহ অসংখ্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোর শিক্ষার্থী শিক্ষক সরকারি চাকুরীজীবি, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন পেশার লোকজনকে এই রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছেন ।
শিবাপাশা সিএনজি শ্রমিক সংগঠনের উদ্যোগে বিগত কয়েমাস পূর্বে তাদের নিজ অর্থায়নে ছোট বড় গর্তে ইট বালী ফেলে স্বেচ্ছশ্রমে সংস্থার করে। কিন্তু টানা বর্ষনে এগুলো উঠে গেলে সড়কটি আবারও মরণ ফাঁদে পরিণত হয়ে যায় । গতকাল রবিবার শিবপাশা সিএনজি শ্রমিক সংগঠনের আবারো তাদের নিজ অর্থায়নে স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটি মেরামত করার উদ্যোগ নেয়। সড়কের বেহাল অবস্থা নিয়ে গণমাধ্যম ও সোস্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠলেও সংস্কারে কোন গতি নেই। একাধিকবার সংবাদ প্রকাশ হলেও কে শোনে কার কথা। দেখার যেন কেউ নেই ।
এদিকে,নবীগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি অফিসের সিনিয়র কর্মকর্তা জনাব, সিরাজুল ইসলাম বলেন,
এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য যোগাযোগ মন্ত্রণালয় কর্তৃক একটি চিটি এসেছে তবে বরাদ্দ না আসায় দরপত্র আহবান করা যাচ্ছেনা আশা করি অচিরেই হয়ে যাবে ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত