সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বড়লেখায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে ছুরিকাঘাত : হামলাকারীকে গণধোলাই



বড়লেখা প্রতিনিধি:: বড়লেখা উপজেলার ১০ নং দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেনকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে বেলাল আহমদ (৪৫) নামে এক ব্যক্তি। সে সুজানগর ইউনিয়নের বড়থল গ্রামের মৃত আরজান আলীর ছেলে। শুক্রবার সন্ধা সাড়ে ছয়টার দিকে রতুলিবাজারে বেলাল ধারালো ছুরি দিয়ে ইকবালের পেটের ডানদিকে আঘাত করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা এগিয়ে আসায় ভাগ্যক্রমে তিনি বেচে যান। তবে তার পেটসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। উত্তেজিত জনতা ছুরিকাঘাতকারী বেলাল আহমদকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে। জনপ্রিয় সাবেক জনপ্রতিনিধর ওপর হামলার ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে সাবেক ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন একটি সালিশ বিচার থেকে ফিরছিলেন। রতুলি বাজারের মসজিদ প্রাঙ্গণে যাওয়া মাত্র বেলাল আহমদ তাকে ডেকে দাড় করিয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। পেটে কুপ দিলে ইকবাল হোসেন ছুরির হাতলে ধরে ধস্তাধস্তি করতে থাকলে প্রত্যক্ষদর্শীরা এগিয়ে তাকে রক্ষা করেন। এসময় উত্তেজিত জনতা ছুরিতাঘাতকারী বেলালকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে। পরে লোকজন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।
আহত সাবেক ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন জানান, হামলাকারী বেলাল আহমদ সম্পর্কে তার মামা হন। তার সাথে পারিবারিক বিরোধ চলছে। তবে আমাকে হত্যা করার মত কোন বিরোধ চলছে বলে মনে হচ্ছে না। ডেকে নিয়েই যেভাবে স্টেপিং করেছে তাতে ভাগ্যক্রমেই তিনি বেচে গেছেন।
বড়লেখা থানার ওসি (তদন্ত) দেবদুলাল ধর জানান, খবর পেয়ে পুলিশ রাত সোয়া সাতটায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত