শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে তিন বাড়ি থেকে এক রাতে ৮ গরু চুরি



কমলগঞ্জ প্রতিনিধি ::মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে গরু চুরির প্রকোপ বৃদ্ধি হয়েছে। উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের তিনটি বাড়ি থেকে একই রাতে ৮টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে জুয়ার আসর, ইয়াবা বড়ি সেবন ও বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পতনঊষার গ্রামের ওয়াব মিয়ার ৩টি, শ্রীরামপুর গ্রামের আব্দুস ছত্তারের এর ২টি ও তরাজ মিয়ার ৩টি গরু চুরি হয়। বাড়ির গৃহস্থরা জানান, ৮টি গরু চুরির ফলে তাদের প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া কিছুদিন পূর্বে পতনঊষার গ্রামের শমশের খাঁনের বাড়ি থেকে ৪টি গরু ও সুরুজ মিয়ার বাড়ি থেকে আরো ৩টি গরু চুরি হয়েছে। পুলিশ শুক্রবার রাতে মিটু মিয়া (৩৮) নামে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছে। তিনি শহিদনগর বাজারের প্রাক্তন পাহারাদার।
পতনঊষার ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য কবির আহমদ খান মুক্তিসহ শতাধিক এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় একজন জনপ্রতিনিধির মদদে প্রায় প্রতিরাতেই শ্রীরামপুর-চাতলাপুর এলাকার একটি আস্তানায় জুয়ার আসর বসে। এখানে বহিরাগত ছাড়াও স্থানীয় অনেকেই জুয়া খেলায় জড়িত রয়েছেন। যদিও মাঝে মধ্যে পুলিশি অভিযান হয়। এলাকাবাসীর ধারণা, এই জুয়ার আসরের কারণেই এলাকায় গরু চুরিসহ আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটছে।
শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক আবু ছায়েম মো: আব্দুর রহমান একই রাতে পতনঊষার ইউনিয়নে ৮টি গরু চুরির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় জড়িত সন্তেহে শুক্রবার রাতে মিটু মিয়া নামে একজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। গরু চুরি রোধে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
কমলগঞ্জ থানার ওসি বদরুল হাসান বলেন, গরুচুরিসহ সকল অপরাধমূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধে পুলিশ সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। গভীর রাতে সন্দেহভাজন লোকের আনাগোনা থাকলে পুলিশ অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এজন্য এলাকার সচেতন লোকদের সহায়তা প্রয়োজন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত