সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

একনেক সভাএলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ ৫ প্রকল্প অনুমোদন



নিউজ ডেস্ক::জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ঢাকা- আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রকল্পসহ পাঁচটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ৩৪ হাজার ৫৬৭ কোটি ৩৪ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় প্রকল্পগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়।

একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আজকের উপস্থাপিত পাঁচটি (নতুন) প্রকল্পের মোট ব্যয় সরকারি অর্থায়ন থেকে করা হবে ১২ হাজার ৪০২ কোটি ৬৫ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ২২ হাজার ১৬৪ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।’

মন্ত্রী জানান, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর হতে শুরু হয়ে আব্দুল্লাহপুর-আশুলিয়া-বাইপাইল হয়ে নবীনগর মোড় এবং ইপিজেড হয়ে চন্দ্রা মোড় পর্যন্ত ২৪ কি.মি. এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ করা হবে। ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পটি ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সাথে সংযুক্ত হবে। এটি বাস্তবায়িত হলে ঢাকার সাথে ৩০টি জেলার সংযোগ স্থাপনকারী আব্দুল্লাপুর-আশুলিয়া, বাইপাইল-চন্দ্রা করিডোরে যানজট অনেকাংশে হ্রাস পাবে।

প্রাক-সম্ভাব্যতা সমীক্ষা অনুসারে প্রস্তাবিত এলাইনমেন্টটি ছিল হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর হতে শুরু হয়ে আব্দুল্লাহপুর-আশুলিয়া-বাইপাইল হয়ে নবীনগর মোড় এবং ইপিজেড হয়ে চন্দ্রা মোড় পর্যন্ত এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে। সম্ভাব্যতা সমীক্ষা অনুযায়ী প্রস্তাবিত এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের দৈর্ঘ্য দাঁড়ায় ২৪ কি.মি.।

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভৈটেড এক্সপ্রেসওয়েটি নির্মিত হলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জঅতিক বিমান বন্দর হয়ে আব্দুল্লাপুর-আশুলিয়া-বাইপাইল হয়ে নবীনগর মোড় এবং ইপিজেড হয়ে চন্দ্র মোড় পর্যন্ত সংযোগ স্থাপিত হবে। এছাড়া এক্সপ্রেসওয়েটি প্রায় সকল জাতীয় মহাসড়কের সাথে সংযুক্ত হবে।

এ প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ১৩৬১০.৪৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে জিওবি ২৩৯৫.৬৯ কোটি টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ১১২১৪.৭৮ কোটি টাকা। প্রকল্প সাহায্য প্রদানকারী সংস্থা জাইকা।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত