বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

পাবনার সাদুল্লাহপুরে শিক্ষক নিয়োগ সংবাদের প্রতিবাদ ও ইউপি চেয়ারম্যানের বক্তব্য



পাবনা প্রতিনিধি : “শ্রীকোল আমিনা স্মৃতি উচ্চবিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে ১জন গুলিবিদ্ধ” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পাবনা সদর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো ঃ আব্দুল কদ্দুস মুন্সী। তিনি জানান, সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদটি স¤পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট উদ্দেশ্য প্রণোদিত, কাল্পনিক ও মন গড়া। প্রকাশিত সংবাদটির নেপথ্যের নায়ক উক্ত বিদ্যালয়ের সভাপতি আওয়াল কবির জয়। তার ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল, আমাকে ও আমার দুই ছেলেকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার হীনমানসিকতায় পরিকল্পিত ভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

প্রকাশিত সংবাদের সত্য ঘটনা হলো। আওয়াল কবির জয় উক্ত বিদ্যালয়ের সভাপতি, আমি কোন প্রকার উক্ত বিদ্যালয়ের সাথে জড়িত না। অতি সম্প্রতি আওয়াল কবির জয় তার বোনকে প্রধান শিক্ষক এবং তার ভাইকে অফিস সহকারী পদে অবৈধ ভাবে নিয়োগ দিতে গেলে, বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির ৫ জন নির্বাচিত অভিভাবক সদস্য ও ১ জন বিদ্যুৎসাহী সদস্য প্রতিবাদ জানিয়ে পদত্যাগ করেন। এতে আওয়াল কবির জয় তার বোন ও ভাইকে নিয়োগ দিতে ব্যর্থ হয়ে অপর পক্ষকে ঘায়েল করার জন্য নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনীকে সাথে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।
নুরুল ইসলাম (৪৮) নামে যে ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ দেখানো হয়েছে। উক্ত নুরুল ইসলাম, আওয়াল কবির জয় এর লোক এবং নুরুল ইসলাম প্রায় ১০ টি হত্যা ও অস্ত্র মামলার আসমী এবং সে একটি অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হয়ে জেলে ছিল। কিছু দিন আগে জয় তাকে জামিনে বের করে এনেছে।
নুরুল ইসলাম এলাকায় শিয়াল ইসলাম সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, খুনী নামে পরিচিত। সে আওয়াল কবির জয়ের নির্দেশে এলাকায় সন্ত্রাসী কার্যকালাপ চালিয়ে আসছে। ঘটনার দিন শিয়াল ইসলাম গংরা একটি অনৈতিক কাজে যাবার পথে অসাবধানতা বসত নিজের বন্দুকেই শিয়াল ইসলাম গুলিবিদ্ধ হয় এবং গোপনে হাসপাতালে ভর্তি হয়। পুলিশী মামলা এড়াতে, জয়ের নির্দেশে আমার ২ ছেলের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করার জোড় চেষ্টা করছে ও বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি প্রকাশিত এই মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ করছি।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত