রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আগামী বিপিএল নিয়ে প্রস্তুতি শুরু এখনই!



স্পোর্টস ডেস্ক:: বিপিএল পঞ্চম আসরের রেশ এখনও কেটে যায়নি। এখনও মিরপুরে গেলে ক্রিস গেইল, এভিন লুইস কিংবা জনসন চার্লসদের ছক্কার ধ্বনি শোনা যাবে বাতাসে। চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের উৎসব থামেনি এখনও। ঢাকা এবং রংপুরের মধ্যকার জমজমাট ফাইনাল শেষে শেষ হাসি হেসেছে মাশরাফি বিন মর্তুজার দলই। পাঁচবারের মধ্যে ঈর্ষণীয়ভাবেই চারবারের শিরোপা তুলে ধরেছেন তিনি। বিপিএল ফাইনালে মঞ্চটা যেন তার একারই। মাঝে একবার সেই মঞ্চের দখল নিয়েছিলেন শুধু সাকিব আল হাসান। এবার সেই সাকিবকে হারিয়েই হারানো সা¤্রাজ্য পূনরূদ্ধার করেছেন মাশরাফি।

বিপিএল সিজন ফাইভ শেষ হতে না হতেই ফ্রাঞ্চাইজিদের মধ্যে তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে আগামী আসর নিয়ে। এক বছর আগেই ছক কষা শুরু হয়েছে পরের আসরে কেমন দল গঠন করবে ফ্রাঞ্চাইজি মালিকরা। এবারের আসরের সেরা সেরা পারফরমারদের ধরে রাখার পাশাপাশি নতুন কাদের নিয়ে দলকে শক্তিশালী করা যায় এবং কোন কোচ আনলে দলকে শিরোপা উপহার দিতে পারবেন সে চিন্তা-ভাবনা, পরিকল্পনা এবং তোড়জোড় শুরু হয়েছে এখন থেকেই।

মঙ্গলবার বিপিএল ফাইনাল শেষেই সংবাদ সম্মেলনে এসে রংপুরের জয়ের নায়ক ক্রিস গেইল বলে গেলেন, ‘ইনশাল্লাহ আমি আগামী বছরও বিপিএল খেলতে আসবো এবং এমনি করেই আপনাদের আনন্দ দিব।’

ভাবার কোনই কারণ নেই যে, শুধু ফাইনাল ও আসর সেরা হওয়ার আনন্দের আতিশয্যে এমন কথা বলেছেন গেইল। আসল কথা হলো, রপুর রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজি বসুন্ধরা গ্রæপ গেইলের আগামী বছরও খেলা নিশ্চিত করে ফেলছে। তার সাথে কথা-বার্তা পাকা হয়ে গেছে। গেইল আগামীবার আবারো বিপিএল খেলতে আসবেন। আর রংপুর রাইডার্সের পক্ষেই খেলবেন।

একইভাবে নিউজিল্যান্ড সুপারস্টার ব্রেন্ডন ম্যাককালামেরও আগামী বিপিএলে রংপুর রাইডার্সে খেলার সম্ভাবনা খুব বেশি। যতদুর জানা গেছে, এ কিউই ড্যাশিং উইলোবাজের সাথে গেইলের মত শতভাগ কথা পাকাপাকি না হলেও তাকেও রেখে দিতে আগ্রহী রংপুর রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজি।

কোচ টম মুডির সঙ্গে তো দুই বছরের চুক্তি আগেই করে নিয়েছে রংপুর। আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরারাদের দায়িত্ব নিয়েই প্রথমবার দলকে শিরোপা উপহার দিয়েছিলেন তিনি। বিপিএলে এসেই প্রথমবার শিরোপা উপহার দিলেন রংপুরকে। এমন কোচকে তো পরেরবার ছাড়বেই না বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা- এটা খুবই স্বাভাবিক।

এদিকে শুধু চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সই যে শুধু গেইল আর ম্যাককালামের মত সফল তারকাদের আগামী বছর দলে রাখতে বদ্ধপরিকর, তা নয়। জানা গেছে, চিটাগং ভাইকিংসছাড়া বাকি ছয় দল এমনকি সেরা চারে জায়গা না পাওয়া রাজশাহী কিংস আর সিলেট সিক্সার্সও এখন থেকেই দল গোছানোর কাজে হাত দিয়েছে।

ভেতরের খবর, ঢাকা ডায়নামাইটস, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সও এবার খেলে যাওয়া বেশিরভাগ তারকা ক্রিকেটারকে আগামী বছরও ধরে রাখতে বদ্ধ পরিকর। তাদের অনেকের সাথেই কথা-বার্তা হয়ে গেছে ফ্রাঞ্জাইজি মালিকদের। শহিদ আফ্রিদি, এভিন লুইসকে হয়ত আগামীবারও ঢাকায় খেলতে দেখা যাবে।

একইভাবে কুমিল্লাও শোয়েব মালিক, হাসান আলি ও মারলন স্যামুয়েলসকে পরের বছরের জন্য দলে রাখার ব্যাপারে বেশ উৎসাহী। খুলনা টাইটান্স নতুন করে বিদেশি ক্রিকেটারের খোঁজে। রাজশাহী ও সিলেট সিক্সার্স বিদেশি ক্রিকেটারের আগে কোচ নিয়োগের মিশনে নেমেছে।

খুব ভিতরের খবর, এবার শেষ দিকে মেন্টর হিসেবে আসা পাকিস্তানের সাবেক কোচ, সাবেক তারকা ফাস্ট বোলার ওয়াকার ইউনুসকে হেড কোচ করতে আগ্রহী সিলেট সিক্সার্স। তার সঙ্গে কথা-বার্তাও নাকি একরকম চূড়ান্ত হয়ে গেছে।

রাজশাহী কিংসও কোচ খুঁজছে। এরই মধ্যে আকিব জাভেদ, জেমি সিডন্স ও ল্যান্স ক্লুজনারের সাথেও নাকি যোগাযোগ করেছেন রাজশাহী মালিকপক্ষ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত