রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : নিরীহ গাড়ী চালককে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে আটক



শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি ::শ্রীমঙ্গলে পল্লী বিদ্যুতের লোক পরিচয় দিয়ে ঘরে ঢুকে সবাইকে জিম্মি করে লক্ষাধিক টাকা, মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়া এবং পরিবারের এক সদস্যকে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে আটক করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করছে একটি পরিবার। এ ঘটনায় মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে গতকাল রোববার বিকালে ৫ টায় শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন মাদক মামলায় আটক মো. মনির হোসেনের স্ত্রী সেলিনা আক্তার ।

সংবাদ সম্মেলনে সদর ইউনিয়নের সুইনগড় এলাকার মো. মনির হোসেনের স্ত্রী সেলিনা আক্তার, লিখিত অভিযোগ করেন তার স্বামী একজন নিরীহ পরিবহন শ্রমিক। তিনি গাড়ী চালিয়ে অভাব অনটন নিয়ে কোন মতে জীবন যাপন করেন। শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় শ্রীমঙ্গলে পল্লী বিদ্যুতের লোক পরিচয় দিয়ে ঘরে ঢুকে সবাইকে জিম্মি করে নিয়ে তাদের সবার কাছ থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়। ঘরে মাদক আছে বলে তল্লাশি চালায় ও মালামাল তছনছ করে।

এ সময় ঘরে রক্ষিত আশা সমিতি থেকে উত্তোলিত আশি হাজার টাকা ও বাচ্ছাদের প্লাস্টিকের ব্যাংক থেকে আনুমানিক বিশ হাজার টাকা নিযে যায় ও আমার স্বামীকে মারধর করে। এক পর্যায়ে ঘরের পাশে কংক্রিটের নীচে মাদক পাওয়া গেছে বলে তারা জানায়। সেলিনা বেগম দাবী করেন তার স্বামী মনির হোসেন একজন সহজ সরল পরিবহন শ্রমিক। তিনি কোন অবস্থায়ই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নন। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে সামান্যতম অভিযোগ শ্রীমঙ্গল থানায় নেই। অথচ রাতে জানতে পারেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের লোকজন মাদক আইনে মামলা দিয়ে তাকে শ্রীমঙ্গল থানা হাজতে প্রেরন করে। যা কাল্পনিক ও সাজানো নাটক। আমি মিথ্যা মামলা থেকে আমার স্বামীর মুক্তির দাবী জানাচ্ছি ।

এ ব্যাপারে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের পরিদর্শক অমর কুমার সেন জানান, সংবাদ সম্মেলনে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তি হীন এবং তিনি আরো জানান আটক মনির হোসেন একজন মাদক ব্যবসায়ী ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত