বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শ্রীমঙ্গলে আহত মেছো বাঘটি সুস্থ



নিজস্ব প্রতিবেদক: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ১০ মে বুধবার রাতে উপজেলার ভৈরব বাজার এলাকার ঢাকা সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে সড়ক দূর্ঘটনায় মেছো বাঘটি গুরুতর আহত হয়েছিল। শ্রীমঙ্গস্থ বণ্যপ্রানী সেবা ফাউন্ডেশনের সেবা-শুশ্রুসায় বাঘটি সুস্থ হয়ে উঠছে। সাভাবিকভাবে খাওয়া দাওয়াও শুরু করেছে প্রাণীটি।

১৯ মে শনিবার বিকেলে বাংলাদেশ বন্যপ্রানী সেবা ফাউন্ডেশনে গিয়ে প্রাণীটিকে চিকিৎসা করতে দেখা যায়। বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সঞ্জিত দেব জানান, ১০ মে রাতে উপজেলার ভৈরব বাজার এলাকার ঢাকা সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে মেছোবাঘটি পরে থাকে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী বাঘটিকে উদ্ধার করে বন বিভাগের কাছে পৌছে দেয়। বন বিভাগ প্রাণীটির প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঐদিন রাতেই শ্রীমঙ্গলস্থ বন্যপ্রানী সেবা ফাউন্ডেশনে প্রাণীটিকে হস্তান্তর করেন। সেখানে ১১দিন যাবত চিকিৎসা শেষে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠেছে প্রাণীটি।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের ভ্যাটেরেনারি সার্জন ডা. আরিফুল ইসলাম বলেন, প্রাণীটিকে সুস্থ করে তুলতে বন্যপ্রানী সেবা ফাউন্ডেশনে গিয়ে আমরা চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছি। আগের থেকে প্রাণীটি কিছুটা সুস্থ। তবে মাথায় গুরুতর আঘাত পাওয়ার কারনে ব্রেইনে কিছুটা সমস্যা হয়েছে এবং সামনে দু’পা অবশ হয়ে গেছে। প্রাণীটিকে সারিয়ে তুলতে কিছুটা সময় ও আরো উন্নত চিকিৎসা লাগবে বলে তিনি জানান।

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সিতেশ রঞ্জন দেব বলেন, প্রাণীটি যখন আহত অবস্থায় এখানে এসেছিল তখন কয়েকদিন খাওয়া দাওয়া করেনি। এখন মেছোবাঘটি খাওয়া-দাওয়া স্বাভাবিক আছে। তিনি আরো বলেন প্রায়ই বন ছেড়ে লোকালয়ে আসা বন্যপ্রাণীগুলো সড়ক দূর্ঘটনা কিংবা মানুষের আক্রমনে আহত হয়। অনেক সময় মারাও যায়। আহত প্রাণীদের উদ্ধার করে সুস্থ করে তুলতে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের সবাই দৃঢ়ভাবে কাজ করছে। বনে খাবার ও বাসস্থান সংকটের কারনেই বন্যপ্রাণীরা লোকালয়ে চলে আসে। এ কারনে বন্যপ্রাণীদের আবাস্থলকে তাদের উপযোগী করে তুলতে হবে বলে তিনি জানান।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত