শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ভোগের প্রচ্ছদে সৌদি রূপসী নারী



নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর দীর্ঘদিন ধরে নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে সৌদি সরকার। সম্প্রতি ফের নারীদের ড্রাইভ সিটে বসার অধিকার দেওয়ার কথা বলছে রক্ষণশীল দেশটি। আর এ নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে এসব ছাপিয়ে বিশ্ববিখ্যাত ফ্যাশন ম্যাগাজিন ভোগের আরব সংস্করণে জুন মাসের প্রচ্ছদে দেখা গেল এক রূপসী নারীকে। মরুভূমিতে পার্ক করা একটি ছাদ-খোলা গাড়ির ড্রাইভিং সিটে বসা তিনি। এই নারী হলেন খোদ সৌদি আরবেরই রাজকন্যা হায়ফা বিনতে আব্দুল্লাহ আল সৌদ। সৌদির প্রয়াত বাদশা আব্দুল্লাহর মেয়ে তিনি।

সম্প্রতি সৌদি নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি নিয়ে নারী আন্দোলনকারীদের ধরপাকড় চলছে দেশটিতে। বেশ কয়েকজন নারী আন্দোলনকারীর স্থান হয়েছে জেলে। এমন পরিস্থিতিতে গাড়ির ড্রাইভিং সিটে বসে সৌদি রাজকুমারীর মডেল হওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সামাজিক সংস্কারমূলক কর্মকান্ডের প্রশংসা করে দেশটির নারীদের অগ্রযাত্রাকে উৎসর্গ করা হয়েছে ভোগের সংখ্যাটি।

রাজকুমারী হায়ফা ভোগ ম্যাগাজিনকে বলেন, আমাদের দেশের রক্ষণশীলরা পরিবর্তনকে ভয় পান। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি পরিবর্তনকে সমর্থন করি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই হায়ফায় ছবিটি শেয়ার করেন এবং সৌদি নারীদের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানান।

কিন্তু ভোগ ম্যাগাজিনে প্রকাশিত তার ছবিটি জন্ম দেয় নতুন বিতর্কের। কারণ, গত মে মাসে কমপক্ষে ১১ জন নারী আন্দোলনকারীকে গ্রেফতার করেছে সৌদি সরকার। তারা পুরুষ অভিভাবকত্ব ও নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতা করছিলেন।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানায়, গত সপ্তাহে এদের মধ্যে চারজনকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অন্যদের ভাগ্যে কি ঘটেছে সে বিষয়ে নিশ্চিত কিছু জানাতে পারেনি কেউ। আগামী ২৪ জুন নারীদের গাড়ি চালনার দীর্ঘদিনের নিষেধাজ্ঞা তুলে দিতে চলেছে সৌদি সরকার।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত