শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিসিকের বর্জে দূষিত খাঞ্জার হাওর: পুড়ছে ফসল, মরছে মাছ



ওমর ফারুক নাঈম: প্রাকৃতিক সৌন্দের্যে ঘেরা মৌলভীবাজার। দিন দিন এই অঞ্চলের শিল্প উন্নয়নের জন্য প্রতিষ্ঠত হয় শিল্প নগরী। কিন্তু যথেষ্ট নজরদারির অভাবে এই শিল্পগুলো দূষণ করছে খাঞ্জার হাওরকে।

বিসিকি শিল্প নগরীর বর্জে দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। কারখানার নির্গত এসিড মিশ্রত পানি নষ্ট হচ্ছে ফসল মড়ছে মাছও। পরিবেশ আইনের তোয়াক্কা না করে প্রতিষ্ঠান গুলো কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা দফায় দফায় কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দিলেও কোনো কাজ হয়নি। যার কারণে প্রায় দশ বৎসর ধরে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছেন স্থানীয় কৃষকরা। এমনকি এলাকাবাসীও হচ্ছেন রোগাক্রান্ত।
মৌলভীবাজার বিসিক শিল্প নগরীতে রাবাব, প্লাষ্টিক, আচার, কাগজ, ফুড, করাতসহ বিভিন্ন কারখানা রয়েছে। পরিবেশ আইনে প্রত্যেকটি কোম্পানির ময়লা পানি সুদানাগার থাকার কথা থাকলেও কারখানা গুলোতে তা পাওয়া যায় নি।
সরেজমিনে দেখা যায়, শিল্প নগরীর দক্ষিণ দিকে খাল দিয়ে দূষিত পানিত নির্গত হচ্ছে। পড়ছে পাশ্ববর্তী খাঞ্জার হাওরে। পাশ্ববর্তী নিতেশ্বর, গোমরা ও জগন্নাথপুর গ্রামের বাসিন্ধারাও বিভিন্ন চর্ম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।


স্থানীয় কৃষক আবেদ মিয়া বলেন, ‘খাঞ্জার হাওরে অর্ধেকই পুড়ে যায়। মাছও মরে যায়। পরিবেশ দূষণই মৌলভীবাজার বিসিকের প্রধান কাজ হয়ে দাড়িয়েছে।’ আব্দুল আলী বলেন, ‘পুরো গ্রামজুড়ে রোগ দেখা দিছে। জমিতে পা দিলে পাও প”ে যায়।’ জয়নাল মিয়া বলেন, ‘এবছর ৫ বিঘা জমির ফসল এসিডের পানিতে নষ্ট হয়েছে।’ বাবুল মিয়া বলেন, ‘ দীর্ঘ দশ বছর ধরে এই হাওরের ফসল নষ্ট হচ্ছে কিন্তু কর্তৃপক্ষরা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এবছর তার ১০ বিঘা জমি নষ্ট হয়েছে বলে জানান। এমনকি হারুন মিয়া, সমছু মিয়া, হারুন মিয়া সহ এলাকা গুলোর মানুষ পড়েছেন পরিবেশ দূষণের চরম ভোগান্তিতে।
স্থানীয়দের আরোও দাবি, এই শিল্প নগরীর সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পানি নিষ্কাষণের জন্য সুধানাগার নির্মাণ করতে হবে। এর জন্য সরকার সহ সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের যথেষ্ট নজরদারির প্রয়োজন। তা না হলে এখানকার পরিবেশ চরম হুমকির মূখে পরবে। ধ্বংস হবে খাঞ্জার হাওর।
এ বিষয়ে মৌলভীবাজার বিসিক শিল্প নগরীর উপ-ব্যবস্থাপক এ এইচ এম হামিদুল হক চৌধুরী বলেন, এখানে আমার কর্মকর্তা আছেন। বিষয়টি নিরসনের চেষ্টা চলছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত