শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাজদীঘির মালিকানা সংক্রান্ত তথ্য ও ঘটনাবলী প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলন



নিজস্ব রিপোর্টার: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে পতনউষার ইউনিয়নের রাজদীঘির মালিকানা সংক্রান্ত প্রকৃত তথ্য ও রাজদীঘিকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট প্রকৃত ঘটনাবলী প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মাহবুবুর রহমান।

শনিবার দুপুরে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বিভিন্ন দাবী ও তথ্য তুলে ধরেন।

লিখিত বক্তব্যে বলেন, “পতনউষার ইউনিয়নের ১,২,৩,৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বারদের নেতৃত্বে রাজদিঘীকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত ভাবে ষড়যন্ত্রমূলক ঘটনা সাজিয়ে মিথ্যাচার প্রচারের মাধ্যমে অর্ধেক অংশের মালিকপক্ষকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে চক্রান্ত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, “রাজদিঘীর অর্ধেক অংশের মালিক এবং প্রায় ৩যুগ যাবৎ সরকারী অর্ধেক অংশ বন্দোবস্তো প্রাপ্ত হয়ে ভোগব্যবহার করে আসা সত্তেও আমাদেরকে দখলদার বাহিনী বলে মিথ্যা প্ররাচনা চালানো হচ্ছে। মনগড়া মতে বাশের খুটি গেড়ে সীমানা বাধ দিতে আপত্তি করে সার্ভের মাধ্যমে সঠিক স্থানে সীমানা বাধ দেওয়ার আহবান জানানো স্বত্বেও, আমরা অর্ধেক সরকারি জলাশয় উদ্ধারে বাধ প্রদান করছি বলে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে। এলাকার সম্পূর্ণ শান্ত-স্বাভাবিক থাকা স্বত্বেও এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। জেলা মৎস কর্মকর্তা, উপজেলা মৎস কর্মকর্তারা ও সাংবাদিকরা সরেজমিনে বাধ নির্মাণ কাজ দেখতে গেলে, আমার ভাই মনসুর আহমদ তাদের উপর মারমুখী হয়ে উঠেন বলে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে-যিনি ৭বছর যাবৎ দুবাই প্রবাসে রয়েছেন। দিঘীতে কোনও মালিকানা না থাকা স্বত্বেও আমার চাচা আসিকুর রহমানকে রাজদিঘীর আংসিক মালিকানা বলে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে। আমার ভাই মনসুর আহমদ রাজদিঘীর সরকারী অর্ধেক অংশ উদ্ধার কাজে বাধা দিয়েছেন এবং সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য দিয়েছেন মর্মে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে। অথচ যিনি ৭ বছর যাবৎ দুবাই প্রবাসে রয়েছেন।”

এসময় আশিকুর রহমান সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত