শুক্রবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শমসেরনগরে জোরপূর্বক প্রবাসীর বাসা দখলের অভিযোগ, প্রবাসী কল্যাণ সেলে অভিযোগ



বিশেষ প্রতিবেদক:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর বাজারে বড় ভাই মোস্তফা মিয়া কর্তৃক ছোট ভাই মিয়া আহমদ গোলাম সরওয়ারের বাসা দখল করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে লন্ডন প্রবাসী মিয়া আহমদ গোলাম সরওয়ার সম্প্রতি জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগ এবং লন্ডন হাই-কমিশনের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের কাছেও আরেকটি অভিযোগ জমা দিয়েছেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়, অভিযোগকারী মিয়া আহমদ গোলাম সরওয়ার ও ছোট ভাই মিয়া আহমদ গোলাম মূসাকে বিগত ১৯৯০ সালের ৪ জুন কমলগঞ্জ উপজেলার সাব-রেজিষ্টার অফিসে সম্পাদিত ও রেজিষ্ট্রিকৃত ৩৩৬০ নং দানপত্র দলিল মূলে (দাগ নং ৯৭১/৯৭২) ০৭ শতক ভুমি’র উপর নির্মিত দালান কোঠার দখল শমজাইয়া দেন। পরবর্তীতে এই জায়গার উপর দোকান ও বাসা নির্মাণ করে যৌথভাবে অভিযোগকারী দুই ভাই দীর্ঘ দিন ধরে ভোগ করে আসছেন। সর্বশেষ গত ২৫/০৩/২০১৮ইং তারিখে বাসার কেয়ারটেকার জুন ২০১৮ইং পর্যন্ত বাসার কর শমসেরনগর ইউনিয়ন পরিষদে পরিশোধ করেন (মেমো নং-১০৩) এবং একই দিন ভুমি উন্নয়ন করও পরিশোধ করেন (ক্রমিক নং (৯১১১১৫)।
অভিযোগে তিনি আরোও বলেন, “সম্প্রতি বড় ভাই মোস্তফা মিয়া পিতার নিকট হতে প্রাপ্ত স্বত্ত্ব দখলীয় ভুমি ও দালান কোটা জোরে বলে দখলের পায়তারা করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা দেশে না থাকার সুবাধে তিনি দীর্ঘ দিন ধরে আমাদের ভাড়াটিয়াদেরকে বাসা থেকে বের হওয়ার হুমকি দিয়ে আসছেন এবং বিল্ডিংয়ের উপরে কাজরত রাজমেস্ত্রীদের হুমকি দিয়ে বের করে দেন। আমরা বিষয়টি জানতে পেরে জনপ্রতিনিধি ও নিকট আত্মীয়দের অবগত করি। তিনি কোনো আত্মীয় স্বজনের কথা না শুনে বরং তাদের তুচ্ছ তাচ্ছিল করেন এবং বলেন, যে কোনো মর্মে আমাদের মালিকানা ও দখলী জায়গা উনার দখলে নিবেন।
কিন্তু হঠাৎ করে চলতি বছরে ১৪ এপ্রিল বিকালে মোস্তফা মিয়া ৭/৮ জন লোক নিয়ে বাসার নিচের ভাড়াটিয়াগনকে ঘর খালি করে দিতে বলেন। এসময় ভাড়াটিয়াগণ সময় চাহিলে মোস্তফা মিয়ার সঙ্গে থাকা লোকজন দা ও লাঠি বাহির করে বলেন, তাৎক্ষণিক ভাবে ঘর খালি কর, অন্যতায় মালামাল ভাঙচুর ও লুট করে নিয়ে যাব। কথা বার্তার এক পর্যায়ে লোকজন আমরা দুই ভাই’র বিল্ডিং এর নিচ তলার দোকান ঘরে তালা মেরে দেয়।
সরেজমিন প্রতিবেদক এলাকায় গিয়ে একাধিক স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে কথা হলে তারা বলেন, মোস্তফা মিয়া সম্পূর্ণ অন্যায় ভাবে ছোট দুই ভাইয়ের জায়গা দখলে নিয়েছেন। তিনি জোরে ভাড়াটিয়া ও কাজের মেস্ত্রীদের বাসা থেকে বের করে ওই বাসাটি দখলে নেন। এছাড়াও উনার বিরুদ্ধে এলাকায় আরো অনেক একাধিক অভিযোগ রয়েছে।
এবিষয়ে লন্ডন প্রবাসী মোস্তফা মিয়া’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বাবার সাথে কাজ করে ওই জায়গাটি দাদার কাছ থেকে কিনছিলাম। কিন্তু আমার অগোচরে ছোট দুই ভাই বাবাকে ম্যানেজ করে জায়গাটি তাদের নামে দানপত্র হিসেবে নেন। এর বিনিময়ে আমরা দুই ভাইকে অন্য কোনো স্থানে জায়গা দেয়া হয়নি। দানপত্রের দলীল ভাঙার জন্য আমি ইতি মধ্যে আবেদন করেছি।
শমসেরনগর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বাবুল মিয়া বলেন, বিচারের জন্য কয়েকদিন আগে লন্ডন থেকে তাদের এক ভাই আমাকে ফোন দিয়ে ছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে আর কেউ যোগাযোগ করেননি।

 

 

#দৈনিক মৌলভীবাজার/হোসাইন আহমদ/ওফানা

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত