সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

চা শ্রমিক ইউনিয়নের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ



শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি::
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ও কালিঘাট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শ্রীধনী কুর্মির উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ ও অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবীতে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে চা শ্রমিকরা।

গতকাল সকালে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে শহরের মৌলভীবাজার সড়কের লেবার হাউজের সামনে সোনাছড়া চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি কার্তিক নায়েক এর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বালিশিরা ভ্যালী সভাপতি বিজয় হাজরা, সাধারণ সম্পাদক দেবেন্দ্র বাড়াইক, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা পরাগ বাড়ই, সহ সভাপতি পংকজ কন্দ, অর্থ সম্পাদক পরেশ কালিন্দী প্রমুখ।

মানববন্ধন ও সমাবেশে ৬৪ টি চা বাগানের পঞ্চায়েত সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ প্রায় ৩ শতাধিক চা শ্রমিক উপস্থিত ছিলেন।
মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে শ্রীধনী কুর্মীর উপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে ও এর সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানানো হয়, তা নাহলে চা বাগানে চা শ্রমিকরা ধর্মঘটে বসবে বলে প্রশাসনকে হুসিয়ারী প্রদান করে তারা।

সোনাছড়া চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি কার্তিক নায়েক  বলেন, গত ৭ আগষ্ট সোনাছড়া চা বাগানের গুরুপ্রসাদ গোয়ালার একটি ষাড়ঁ গরু চুরি করে নেওয়ার সময় কালাপুর আনসার ক্যাম্পের পাশ থেকে স্থানীয়দের হাতে সালেহ আহমদ ধরা পড়ে। পরে কালিঘাট ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য শ্রীধনী কুর্মী, কালাপুর ইউপি সদস্য রেনু মিয়া সহ সকলে মিলে তাদের থানায় প্রেরন করে। কিছুদিন পর আদালতের মাধ্যমে জামিন নিয়ে বেড়িয়ে এসে গত ১৪ আগষ্ট উপজেলার লামুয়া নামক স্থানে শ্রীধনী কুর্মীকে একা পেয়ে সালেহ আহমেদ ও তার সহযোগীরা তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। এই বিয়য়ে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত