বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজার-৩ আসনঃ মাঠে সরব প্রচারণায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ভিপি সোয়েব



বিশেষ প্রতিবেদকঃ
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সমাগত, প্রার্র্থীরাও নানা কৌশলে ধাপিয়ে বেড়াচ্ছেন নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকা অলি গলি। নানা আশ্বাস নিয়ে ছুটে চলেছেন তৃনমূলের ধারে ধারে। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ততই কৌশলী ভূমিকায় প্রচারনা চালিয়ে যেতে দেখা গেছে।

দেশের অন্যান্য নির্বাচনী এলাকার মত মৌলভীবাজার-৩ (মৌলভীবাজার-সদর-রাজনগর) নির্বাচনী এলাকার ভোটাররাও চাচ্ছেন পরিবর্তন। তৃনমূলের এমন ভাবনার বিষয়টি আঁচ করতে পেরে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন নানা কৌশলে। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা। এবারের পূজা আয়োজনে নতুন করে যুক্ত হয়েছে নির্বাচনী আমেজ, তাই এরকম সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অন্যান্য প্রার্থীদের মত গেল কয়েকদিনে জেলা সদরের নির্বাচনী এলাকায় সনাতন ধর্মালম্বীদের সুখ-দুঃখের ভাগিদার হতে বিভিন্ন পূজা মন্ডপে পরিদর্শন ও ব্যাপক প্রচারণা চালান আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপ-কমিটির সদস্য ও দলীয় প্রতীক নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল মালিক তরফদার ভিপি সোয়েব।

বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ব্যস্থ সময় পাড় করেন তিনি। পূজা মন্ডপ পরিদর্শনকালে ব্যাপক অভ্যার্থনায় সিক্ত হন জনপ্রিয় এই রাজনৈতিক। গত ১৫ অক্টোবর থেকে মৌলভীবাজার সদর ও রাজনগর উপজেলার বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন তিনি। গত বুধবার রাজনগর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দিনব্যাপী গণসংযোগ করেন তিনি। ঐদিন বিকেলে পাচঁগাও ঐতিহাসিক পূজা মন্ডপে গিয়ে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও মন্ডপ কমিটির সঙ্গে কুশল বিনিময় করে তাদের খোঁজ খবর নেন ভিপি সোয়েব।

এসময় তিনি শেখ হাসিনা সরকারের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন তুলে ধরে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের সমান অধিকার ভোগ করছে জানিয়ে বলেন, একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকারের পক্ষেই কেবলমাত্র সম্ভব হয়েছে দেশের এই অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখা।

পূজা মন্ডপ পরিদর্শনকালে এ সময় তার সাথে ছিলেন, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি জমশেদ আহমদ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি এম কে মুহিত রাজা, আওয়ামী লীগ নেতা অশিকুর রহমান, মির্জা বেলাল বেগসহ কৃষকলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

জানা যায় তৃণমূল থেকে বেড়ে উঠা ত্যাগী এই নেতা দেশ ও প্রবাসে দলের পক্ষে বেশ সরব থেকে বিভিন কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন। আব্দুল মালিক তরফদার ভিপি সোয়েব তার দীর্ঘ রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন। দলীয় প্রভাব খাটিয়ে কোন অনিয়মের সাথে যার নেই কোন ছিটেফোটো সম্পর্ক। তাই তৃণ মুল চায় আগামী নির্বাচনে পরিচ্ছন্ন ও ক্লিন ইমেজের প্রার্থী হোক নৌকার কান্ডারী।

আব্দুল মালিক তরফদার ভিপি সোয়েব এ-প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে জানান, আমি দীর্ঘদিন যাবত দেশও দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের নেত্রী উন্নয়নের যে রোল মডেল তৈরি করেছেন , আমি মূলত সাধারণ মানুষের কাছে সে বার্তা পৌঁছে দিচ্ছি। তিনি বলেন, যেখানে যাচ্ছি সেখানেই সাধারণ মানুষ ও তৃণ মূলের কাছে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি, আমি আগামী নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে মনোনয়ন চাচ্ছি যদি দলীয় সভানেত্রী আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে আমি বিজয়ী হবো এটি আমার দৃঢ় বিশ্বাস, কারন এই অঞ্চলের মানুষ পরিবর্তন চায়, সেকারনে এই আসনে ক্লিন ইমেজের একজন প্রার্থী হিসেবে আগামী নির্বাচনে চাচ্ছে দলের তৃণ মূল ও সাধারণ ভোটাররা। তিনি আরো বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার যেভাবে দ্রুত গতিতে যুগান্তকারী সব উন্নয়ন করেছে তা তৃণ মূলের সাধারণ মানুষের কাছে সঠিক ভাবে তুলে ধরা হচ্ছেনা , যার কারনে আমি গনসংযোগে চলাকালে জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের এসব উন্নয়ন বিস্তও ভাবে তুলে ধরছি সাধারণ মানুষের কাছে।

 

আবদুল মালিক তরফদার সোয়েব মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কুশালপুর গ্রামের মরহুম আলহাজ্ব আব্দুল খালিক তরফদার এর ছেলে । বর্তমানে তিনি মৌলভীবাজার শহরের বনশ্রী এলাকার বাসিন্দা।

তিনি ছাত্র জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত, ১৯৮৪ সালে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের যুগ্ন সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৮৭ সালে একই কলেজের ভিপি নির্বাচিত হন,১৯৮৮ সালে জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক, ১৯৯০ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক,১৯৯৮ সালে নিউ ইয়র্ক সিটি আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক,২০০৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলী সাউদাম্পটন শাখার সভাপতি,২০০৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মৌলভীবাজার জেলা শাখার সদস্য হন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত