শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জালালাবাদ এসোসিয়েশন নির্বাচনে জাকিরের পরাজয়



জালালাবাদ এসোসিয়েশন নির্বাচনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সদ্য বিদায়ী সাধারন সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন ৪০৮ ভোটের ব্যবধানে অত্যন্ত শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়েছেন তার প্রতিদন্ধী প্রার্থী ফাহিমা খানম মনির কাছে।

তিনি সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য সিলেট হবিগঞ্জ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মরহুম দেওয়ান ফরিদ গাজীর চতুর্থ ছেলে দেওয়ান গাজী মোঃ আশফাক নাহিদ এর স্ত্রী। জাকির হোসেন পেয়েছেন ৭৪৯ ভোট তার প্রতিদন্ধী প্রার্থী পেয়েছেন ১১৫৭ ভোট।

দিনভর ব্যাপক উৎসাহ -উদ্দীপনা ও গোধূলীবেলার টান টান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে গতকাল জালালাবাদের এসোসিশেনের এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গ্রহন সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

বিশেষ করে ছাত্রলীগের এই বলিয়ান নেতা প্রার্থী হওয়ার ফলে সকল ভোটারদের নজড় ছিলো এই পদে কে আসবে সেই দিকে।

বিকেল ৫ টায় হঠাৎ করে ভোটারের মধ্যে উত্তেজনা ও হট্টগোল সৃষ্টি হয়, নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহন স্থগিত করে, পরে জাকির হেসেন ও মনি মঞ্চে এসে প্রায় ১০ মিনিট ভোটারদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দিলে পরিবেশ শান্ত হয় এবং পুনরায় ভোট গ্রহন শুরু হয়।

ভোটারদের উদ্দেশ্যে সদ্য বিদায়ী ছাত্রলীগ এই নেতা বলেন, “মনি আপা আর আমি ভাই বোন আপনার কেউ আমাদের ভাই বোনের সম্পর্ক নষ্ট করবেননা,যদি করতে চান তাহলে বুঝবো আপনারা সিলেটের ঐতিহ্য নষ্ট করতে এসেছেন”। পরে পুরো পরিবেশ শান্ত হয়।

এছাড়াও নির্বাচনে ২০১৮-১৯ সেশনে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের ছোট ভাই ড. এ কে আব্দুল মুবিনের নেতৃত্বাধীন প্যানেলের বেশীরভাগ সদস্য বিজয়ী হয়েছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক ব্যাংকার কয়েস সামীর নেতৃত্বাধীন প্যানেলের প্রার্থীরা সাধারণ সম্পাদকসহ ৮টি পদে জয়ী হয়েছেন

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত