বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় নতুন উদ্যোগঃ পরিবেশ মন্ত্রী




স্টাফ রিপোর্টারঃ
পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশে রূপান্তর করতে চান। তাই আমি গণসংবর্ধনা সভা থেকে ঘোষণা দিচ্ছি, আমার উপর যে অর্পিত দায়িত্ব, যে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব, আমার প্রথমকাজ হবে মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতিমুক্ত ঘোষণা করা। তাই আমি সকলের সহযোগিতা চাই।

নিজ মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতমুক্ত করার পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় নতুন উদ্যোগ গ্রহণের কথা বলেন তিনি। মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর বুধবার বিকেলে তিনি প্রথম তাঁর নিজ নির্বাচনী এলাকা মৌলভীবাজারের বড়লেখায় সফর করেছেন। সেখানে স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনসমূহের উদ্যোগে বড়লেখা পৌর শহরের আহমদ ম্যানশনের মাঠে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় বক্তব্য রাখেন তিনি।

মন্ত্রী আরো বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে আমাদের দেশে প্রতিবছর বন্যা, খরা, অতিবৃষ্টি, জলোচ্ছ্বাস হয়। তার পেছনের কারণ হচ্ছে আমরা বন উজাড় করে দিয়েছি। খাল-বিল ভরাট করে দেওয়া হয়েছে। কোথাও কোথাও এগুলো অবৈধ দখল করা হয়েছে। যার ফলে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটেছে। এই বিপর্যয়ের হাত থেকে দেশের মানুষকে রক্ষা করতে হলে, দেশের মানুষের ফসল, জানমাল রক্ষা করতে হলে এই মন্ত্রণালয়কে সঠিকভাবে কাজ করতে হবে। দেশের পাহাড় রক্ষা করতে হবে। বাংলাদেশের যত পাহাড় আছে সেগুলোতে যাতে বৃক্ষ নিধন না হয়। গাছ চুরি যাতে বন্ধ হয়। সেই ব্যবস্থা আমরা করব।
তাছাড়া বড়লেখার পাথারিয়া পাহাড় ও হাকালুকি হাওরকে ইকো-ট্যুরিজমের আওতায় নিয়ে এসে মানুষের কাছে দৃষ্টিনন্দন হিসেবে তুলে ধরার ঘোষণা দেন পরিবেশ মন্ত্রী। তিনি বলেন, এগুলোকে পর্যটন অঞ্চল হিসেবে বিশ্বের মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ডা. প্রণয় কুমার দের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তাজ উদ্দিনের যৌথ সঞ্চালনায় সংবর্ধিত প্রধান অতিথি মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন এমপি ছাড়াও বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার উদ্দিন, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, বাংলাদেশ আনজুমানে আল-ইসলাহ্’র সভাপতি কেএম ছালেহ আহমদ কবির।

এরআগে মন্ত্রী সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় জনসভাস্থলে এসে পৌঁছালে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এদিন বিকেল পৌনে ৫টার দিকে সড়ক পথে সিলেট থেকে বড়লেখা এসে পৌঁছালে উপজেলা পরিষদ ডাকবাংলোয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁকে গার্ড-অব অনার প্রদান করা হয়। বিকেলে সিলেট থেকে বড়লেখা আসার সময় পথে পথে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন মন্ত্রী।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত