মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এ বিজয় জনগণের, সর্বস্তরের জনগনের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা



মকিস মনসুর::

শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনের যৌথ পরিচালনায় আয়োজিত বিজয় সমাবেশে সভাপতির উদ্দেশে তার বক্তব্যের আগে একটি অভিনন্দনপত্র পাঠ করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের. পরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।সমাবেশের আগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম. ফাহমিদা নবী, সালমা ও জলের গান ব্যান্ড সঙ্গীত পরিবেশন করে।

সমাবেশে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মানণীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘এ বিজয় আমার একার নয়, এ বিজয় বাংলাদেশের সব জনগণের। অভিনন্দনপত্রে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজ আমাদের গর্বের দিন। যে ঐতিহাসিক উদ্যানে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে মুক্তির শপথ নিয়েছিল বাংলার মানুষ। সেই প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে অভিনন্দন জানাই আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনাকে। মৃত্যুর মিছিলে দাঁড়িয়ে আপনি কতবার গেয়েছেন জীবনের জয়গান, ধ্বংসস্তূপের ওপর দাঁড়িয়ে আপনি বারবার উড়িয়েছেন সৃষ্টির পতাকা, উত্তাল সাগরে প্রগাঢ় অন্ধকারে বাঙালির বাতিঘর শেখ হাসিনা আপনাকে অভিবাদন। সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশকে আপনি সেই উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, যা আজ বিশ্বের বিস্ময়। সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনি নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। আগামী প্রজন্মের জন্য একটি সমৃদ্ধ দেশ নির্মাণের ব্রত নিয়ে আপনি জেগে থাকেন বলে বাংলাদেশ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন নিয়ে দেশমাতৃকাকে তার আপন সত্তায় ফিরিয়ে এনেছেন। আপনি বলেছিলেন এই মাটিতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে, আপনি এও বলেছিলেন এই মাটিতে বিচার হবে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের। কথা দিয়ে কথা রাখার রাজনৈতিক সংস্কৃতি আপনি ফিরিয়ে এনেছেন। আপনার আলোকসঞ্চারি দৃষ্টিসম্পন্ন সৎ, সাহসী নেতৃত্বের বিভায় উদ্ভাসিত আজ বাংলাদেশের জনগণ। জনগণ তাদের রায়ের মধ্য দিয়ে প্রমাণ দিয়েছেন, তারা স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িকতামুক্ত বাংলাদেশের পক্ষে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা অবিনাশী চিরভাস্বর।’

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত