শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নৃত্যবীণা’র ছয় বছর পূর্তি উৎসব



রুপম আচার্য্যঃ

“সুরের লয়ে, নৃত্যের আহ্বান” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে অনুষ্ঠিত হয়েছে নৃত্য উৎসব ২০১৯। এই নৃত্য উৎসবে মোট ১১টি নৃত্য সংগঠন অংশগ্রহণ করে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় বিভিন্ন নৃত্যদলের ঝলমলে নাচিয়েদের নৃত্যে পর্দা উঠলো নৃত্যবীণার ছয় বছর পূর্তি উৎসবে। অনিতা দেব এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নন্দন কলা কেন্দ্র ঢাকার পরিচালক এম আর ওয়াসেফ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মানচিত্র ঢাকার পরিচালক লাবণ্য সুলতানা, নৃত্যশৈলী সিলেটের নীলাঞ্জনা জুঁই।

মনোমুগ্ধকর আয়োজন বলতে যা বোঝায়, সেটিই ছিল মঞ্চে। নৃত্যের ছন্দ ও নাচের নানা ভঙ্গিমা, বিভিন্ন আয়োজন নিয়ে মঞ্চে ছিল নৃত্য শিল্পীরা। এই অনুষ্টানটি সন্ধ্যা ৭ থেকে শুরু হয়ে রাত ১১ টায় শেষ হয়। এ সময় কানায় কানায় পূর্ণ ছিলো অডিটরিয়ামের হলরুম। অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে নন্দন কলা কেন্দ্র ঢাকার পরিচালক এম আর ওয়াসেফ ও নৃত্যশৈলী সিলেটের নীলাঞ্জনা জুঁইকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। নৃত্যবীণা শ্রীমঙ্গলের উদ্যোগে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়।

এসময় মানচিত্র ঢাকার পরিচালক লাবণ্য সুলতানা ও মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮ এর ২য় রানার্সআপ নাজিবা বুশরা’র মনোমুগ্ধকর পরিবেশনায় মন্ত্রমুগ্ধ ছিলো অনুষ্ঠানে আসা দর্শকরা।

এ সময় নন্দন কলা কেন্দ্র ঢাকার পরিচালক এম আর ওয়াসেফ বলেন, একটা থানা সদরে এত নাচের শিল্পী তৈরী হয়েছে, আমি অভিূভুত। সিলেট হলো বাঙালি সংস্কৃতির পীঠস্থান। এখন তো মনে হয়, নাচেও সিলেটের ছেলে মেয়েরা দেশের মধ্যে এগিয়ে থাকবে। বাংলাদেশে এখন নাচের জয়জয়কার, সুতরাং মৌলবাদ কখনো মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারবে না।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত