শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে সবকিছুতে এগিয়ে মেয়েরা, কমেছে কয়েকটি জিপিএ-৫



ওমর ফারুক নাঈম : 

এবারের এসএসসি ফলাফলে পাশের হার ও জিপিএ ৫ দুটাতেই মেয়েরা এগিয়ে রয়েছেন। বরাবরই পিছিয়ে রয়েছেন ছেলেরা। অবশ্য ছেলেদের চেয়ে মেয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যাই বেশী। তবে গত বছরের তুলনায় এবছর জেলায় কয়েকটি জিপিএ-৫ এর সংখ্যা কমেছে।

সোমবার সারাদেশে এসএসসির ফল প্রকাশিত হয়। এবছর মৌলভীবাজার জেলায় পরীক্ষা অংশ গ্রহণ, পাশের হার ও জিপিএ-৫ সব কিছুই মেয়েদের দখলে।

জেলা শিক্ষা অফিসের সূত্রে, এবছর মৌলভীবাজারে জেলায় মোট পাশের হার ৬৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ। যা গত বছরের তুলনায় এগিয়ে আছে। মোট ২৪ হাজার ৬শত ৮৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাশ করেছেন ১৭ হাজার ১শত ৭৫জন (৬৯.৫৭%)।
এবার জেলায় জিপিএ ৫ পেয়েছেন ৬শত ৩৮জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে এগিয়ে রয়েছেন মেয়েরা। তাদের ৩শত ৪১ জন পেয়েছেন জিপিএ-৫। আর ছেলেদের জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২৯৭ জন।

শুধু জিপিএ-৫ নয় মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে পাশের সংখ্যায়ও। জেলা থেকে ১৪ হাজার ৭শত ১জন ছাত্রী অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয়েছেন ১০ হাজার ১৯ জন (৬৮.১৫%)।

অন্যদিকে পাশের সংখ্যায়ও ছেলেরা পিছিয়ে রয়েছে। মৌলভীবাজার জেলা থেকে এবছর ৯ হাজার ৯ শত ৮৭ জন ছাত্র পরীক্ষা অংশ গ্রহণ করে কৃতকার্য হয়েছেন ৭ হাজার ১ শত ৫৬ জন (৭১.৬৫%)।

এমনকি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণেও মেয়েরা এগিয়ে ছিল। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৪ হাজার ৬শত ৮৮ জন। এর মধ্যে ছেলে ৯ হাজার ৬শত ৮৭ জন আর মেয়ে ১৪ হাজার ৭শত ১জন।

গত বছরের তুলনায় এ বছর মৌলভীবাজার জেলায় পাশের হার বেড়েছে। ২০১৮ সালের ফলাফল ছিল পাশের হার ৬৬ দশমিক ৯৯ শতাংশ। এবছর তা বেড়েছে। তবে কয়েকটি জিপিএ-৫ কমেছে। ১৮ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ৬৭২ পরীক্ষার্থী। এবার মাত্র ৩৪ টি কমে তা হয়েছে ৬ শত ৩৮টি।

এবিষয়টি মৌলভীবাজার জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবু সাঈদ মো: আব্দুল ওয়াদুদ দৈনিক মৌলভীবাজারকে বলেন, “আলহামদুলিল্লাহ। গত বছরের তুলনায় এবছর আমরা ভাল ফলাফল পেয়েছি। ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে।”

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত