শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ডাক্তার হতে চায় রাজনগরের ইমা, পাশে দাড়ালেন ওসি হাসিম



অতিথি প্রতিবেদক::

গত ১৭ মে শুক্রবার বিভিন্ন অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় সংবাদ প্রচার হয় ‘ডাক্তার হতে চায় রাজনগরের ইমা, প্রয়োজন আর্থিক সহযোগিতা’ এই শিরোনামে। সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসিমের চোঁখে পরে।

ওসি আবুল হাসিম সেই প্রতিবেদক আহমদউর রহমান ইমরানের সাথে যোগাযোগ করে শনিবার দুপুরে ইমার বাড়িতে যান। ইমার পারিবারিক খবর নিয়ে তার লেখাপড়ার দায়িত্ব নেন। সে সময় ইমার হাতে নগদ দশ হাজার টাকা তুলে দেন। ইমা যে কোনো প্রয়োজনে বাবা হিসেবে পাশে পাবে বলে আশ্বস্থ করেন ওসি হাসিম।

সে সময় ইমাকে মেয়ে বলে গ্রহণ করেন ওসি হাসিম। ইমার আপন চাচা প্রবাসী জমসেদ মিয়া দুঃখ করে জানান, পারিবারিক বিভিন্ন সমস্যা থাকায় অতীতে ইমার খুঁজ খবর নিতে পারি নি । কিন্তু বর্তমানে ওসি আবুল হাসিম সাহেবের সাথে এক হয়ে সহযোগিতা করবেন বলে কথা দিয়েছেন জমসেদ মিয়া। শনিবার দুপুরে ইমার বাড়িতে তার হাতে দশ হাজার টাকা তুলে দেন ওসি আবুল হাসিম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক আহমদউর রহমান ইমরান, ইমার প্রাইভেট শিক্ষক কুতুব উদ্দিন জয়, ইমার প্রবাসী চাচা জমসেদ মিয়া, জমসেদ মিয়ার স্ত্রী, ইমার মা সেলিনা বেগম সহ বাড়ির অন্যান লোকজন।

রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসিম বলেন, আমি সাংবাদিক ইমরান ভাইয়ের ‘ডাক্তার হতে চায় রাজনগরের ইমা, প্রয়োজন আর্থিক সহযোগিতা’ সংবাদটি দেখে শনিবার দুপুরে ইমার বাড়িতে যাই। তাদের সাথে আলাপ আলোচনা করে ইমার লেখাপড়ার দায়িত্ব নেই এবং ইমাকে আমার নিজের মেয়ে হিসেবে গ্রহণ করি। সে সময় ইমার ফ্রান্স প্রবাসী চাচা জমসেদ মিয়ার সাথে আলাপ করে থাকে আমার সাথে সহযোগিতা করার জন্য অনুরুদ করি। আমি যতদিন বেঁচে থাকবো বাবা হয়ে ইমার খুঁজ খবর নিবো।

ফাতেমা আক্তার ইমা বলেন, “আমি অনেক খুশি। অনেক দিন পর একজন বাবা পেয়েছি। আমার লেখাপড়া ও কাজ দিয়ে সবার সম্মান রাখবো ইনশাআল্লাহ। আমার স্বপ্ন পুরণে দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই”।

উল্লেখ্য, ফাতেমা আক্তার ইমা এবারের এসএসসি পরীক্ষায় উপজেলার রাজনগর আইডিয়াল হাই স্কুল থেকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন এ প্লাস পেয়ে উত্তির্ন হয়েছে। তার বাড়ি মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মনসুরনগর ইউনিয়নের গবিন্দবাটী এলাকায়। ফাতেমা আক্তার ইমা’র স্বপ্ন লেখাপড়া করে সে ডাক্তার হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত