রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হুমকি দিয়ে গেল ‘মনু’



স্টাফ রিপোর্টার::

এক ভয়ংকর হুমকি দিয়ে গেল খারস্রোতা মনু নদী। কখন কোথায় যে বাধ ভেঙে ভাসিয়ে নিয়ে যাবে তা নিয়ে আতংকে মানুষ। গেল বারের বন্যার দৃশ্য কেউ ভূলে নি। সেটা যে কত ভংকর হয়েছিল তা মানুষকে মনে করিয়ে দেয় এবারের নদীর পানি বৃদ্ধি দেখে। এর কারণ কয়েক দিন ধরে ভারি বর্ষণ ও উজানের ঢলে নাম ছিল। তাই মনু নদীতে পানি বেড়েছে।

যে কোন দিকে যখন তখন ভাঙতে পারে বাধ। এই আশংকায় ঘুমহীন রাত কাটাচ্ছে নদীর পাড়ের গ্রামের মানুষ। রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের তারাপাশা টিলেরপার গ্রামে মনু নদের বাঁধ ঝুঁকির মধ্যে পড়ে। পরে রাতভর চেষ্টা চালিয়ে বাঁধ টিকিয়ে রাখেন পানি উন্নয়ন বোর্ড। যার ফলে এ এলাকার মানুষ সাময়িক স্বস্থি পেলেও আতংক কাটছে না।

স্থানীয়রা জানান, গত বছর এই সময়ে মনু নদীর বাঁধ ভেঙে রাজনগর উপজেলার কয়েকটি গ্রাম ও মৌলভীবাজার শহরের একাংশ তলিয়ে গিয়েছিল। এ বছরও একই পরিস্থিতি দেখা দেয়ায় আতংকে ঘুমহীন রাত পার করছেন নদীর পাড়ের মানুষ।

মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, ভারতের কৈলাশহরে বৃষ্টির কারণে উজান থেকে আসা ঢলে মনু ও ধলাই নদীতে দ্রুত পানি বেড়েছে। এতে বাঁধ ভেঙ্গে লোকালয়ে পানি প্রবেশের আশংকা দেখা দিয়েছে। শনিবার দুপুর থেকে মনু ও ধলাই নদীর পানি বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রনেন্দ্র সংকর চক্রবর্তী জানান, মনু ও ধলাই নদীতে হঠাৎ পানি বাড়ার মূল কারণ ভারতের কৈলাশহরে ২৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত। বৃষ্টির পানি এই নদী দিয়ে আসে। পানির চাপে নদীর বাঁধে দুই জায়গায় ভাঙনের আশংকা দেখা দিয়েছে। এখন পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত