শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মনু, ধলাই ও কুশিয়ারা নদীর পানি কমছে



মৌলভীবাজার জেলার মানচিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদক::

মৌলভীবাজার জেলা দিয়ে বয়েছে মনু, কুশিয়ারা ও ধলাই নদী। এই তিন নদীর পানি বর্তমানে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে আগের তুলনায় নদীর পানি অনেকটা কমেছে।

নদ-নদীর পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে মৌলভীবাজারের প্রায় ৪০হাজার পরিবার বন্যার কবলে পড়েছেন।

নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে ও উপচে সদর উপজেলা, রাজনগর ও কমলগঞ্জের কয়েকশত গ্রাম তলিয়ে গেছে। তলিয়ে গেছে বাড়ি-ঘর, রাস্তা-ঘাট ও ফসলি জমি। দুর্গতদের মধ্যে দেয়া হচ্ছে ত্রাণ সহায়তা। পানি ঢুকেছে প্রায় ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

পাউবো সূত্রে জানা যায়, সর্বশেষ ১৬ জুলাই রাত ৯ টায় মৌলভীবাজারের মনুনদী রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপদ সীমার ৪৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে ও চাঁদনীঘাট পয়েন্টে বিপদ সীমার ৮৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে। ধলাই নদী ৪৪ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে ও কুশিয়ারা নদী মৌলভীবাজার অংশে শেরপুর পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এর আগে গত ১৫ জুলাই রাত ১১.৫৯ মিনিটে মৌলভীবাজারের মনুনদী রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপদ সীমার ৭৬ সেন্টিমিটার ও চাঁদনীঘাট পয়েন্টে ৯৭ সেন্টিমিটার, ধলাই নদী ৯ সেন্টিমিটার ও কুশিয়ারা নদী মৌলভীবাজার অংশে শেরপুর পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল।

পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী রণেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী জানান, “পানি নামার পরই ধলাই নদের তিনটি ভাঙনস্থান মেরামত করা হবে।”

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত