শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

যতো ত্রাণ লাগবে ততো ত্রাণ দেওয়া হবে
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী



নিজস্ব প্রতিবেদক::
দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এমপি বলেন মানবতার নেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বন্যা উপদ্রুত এলাকার মানুষের দূর্দশায় সহমর্মিতা জানাতে এসেছি। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মৌলভীবাজারের প্রত্যেক ঘর পাকা করে বানিয়ে দেওয়া হবে।

যতো ত্রাণ লাগবে ততো দেওয়া হবে বলে মন্ত্রী বলেন, ইতিপূর্বে মৌলভীবাজারের বন্যার্তদের জন্য ৬৫০ মেট্টিক টন চাল, নগদ সাড়ে ৯ লক্ষ্য টাকা, ৬ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার দেওয়া হয়েছে। নতুন করে আরও দুইশ মেট্টিক টন চাল মৌলভীবাজারে বরাদ্দ দেন প্রতিমন্ত্রী। আগামী ঈদ উপলক্ষে ১৫ কেজি করে চাল বন্যার্তদের দেওয়া হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুরে রাজনগরের উত্তরভাগ ইউনিয়নের বন্যা উপদ্রুত এলাকার এক হাজার মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের সময় বিমলা চরণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই সব কথা বলেছেন।

ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা আ’লীগ সভাপতি নেছার আহমদের সভাপতিত্বে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ.কে.এম এনামূল হক শামীম এমপি বলেন- বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে উত্তরাঞ্চলের মঙ্গা এলাকায় মঙ্গা দূর হয়ে গেছে। বন্যার্তদের দূর্যোগ দূরাবস্থাও তার নেতৃত্বে দূর হয়ে যাবে। তিনি বক্তুতায় আরও বলেন মৌলভীবাজারের মনু নদের তীরের ৮৫ কি:মি: বন্যা প্রতিরক্ষা সুরক্ষায় স্থায়ী সমাধানে এক হাজার দুই কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। কুশিয়ারা নদীর বাম তীরে বন্যা প্রতিরক্ষা বাঁধ সংস্কার ও নির্মাণে ৪৯৬ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান। তখন উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত আসনের এমপি মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ) সৈয়দ জোহরা আলাউদ্দিন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের সচিব শাহ কামাল, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মহাপরিচালক আবু সাঈদ মোহাম্মদ হাকিম, জেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক মিজবাহুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, ফজলুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম প্রমুখ।

রাজনগরের উত্তরভাগ এলাকায় ত্রাণ বিতরণে যাওয়ার আগে মনু নদের তীর রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীদ্বয়। ত্রাণ বিতরণ শেষে রাজনগরের হলদিরগুল এলাকায় কুশিয়ারা নদী তীরের ভাঙ্গন প্রবণ এলাকা তারা পরিদর্শন করেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত