বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কিশোরীর মানসিক রোগ, শেষে আত্মহত্যা



নিজস্ব প্রতিবেদক ::

সৃষ্টি দে ১৫ বছর বয়সের এক কিশোরী। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে মানসিক রোগে আক্রান্ত। কিন্তু অবশেষে তার জীবণ প্রদীপ নিভে গেল। নিজেই নিজের জীবণের ইতি ঘটালেন। গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করলেন।

শনিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের কাজির চক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাজির চক গ্রামের গোবিন্দ দে’র নবম  শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে সৃষ্টি দে গত ৩-৪ বছর ধরে মানসিক রোগে ভুগছিল। এনিয়ে কয়েক বছর ধরে পরিবারের লোকজন তাকে ডাক্তার দেখিয়ে আসছেন। শনিবার রাতে বাবা বাড়ির বাইরে ও মা রান্নাবান্নার কাজে ব্যস্ত থাকার সুযোগে সবার অগোচরে ঘরের কাঠের তীরের সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

স্থানীয়রা আরোও জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার মা গিয়ে ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। তিনি ফাঁস কেটে মেয়েকে রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সৃষ্টিকে মৃত ঘোষণা করেন। রবিবার সকালে ময়নাতদন্ত ছাড়া পরিবারের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। সৃষ্টি দে উপজেলার তারাপাশা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

রাজনগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) অজিত কুমার তালুকদার বলেন, সংশ্লিষ্ট বিভাগে পরিবারের লোকজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে মৃতদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়া হস্তান্তর করা হয়েছে। কারো বিরুদ্ধে তার পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেনি।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত