বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

তৃণমূল নেতাকর্মীরা কামরুলকে সাধারণ সম্পাদক দেখতে চায়



আ.স.ম কামরুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক::

রাজনৈতিক এবং ভৌগলিক কারনে মৌলভীবাজার জেলার অতি গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা কুলাউড়া। বিগত কয়েক দশক ধরে রাজনৈতিক কারনে এই উপজেলাটি দেশব্যাপী আলোচিত ও সমালোচিত। এখানকার জনপ্রতিনিধিরা কখনো প্রশংসায় ভাসেন আবার কখনো উৎকট সমালোচনায় বিভোর থাকেন।

দীর্ঘ ১৫ বছর পর আগামী ১০ নভেম্বর কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বেশ উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে চলছে সম্মেলন ও কাউন্সিলের কার্যক্রম। সম্মেলনকে ঘিরে কুলাউড়ার সর্বত্র চলছে কানাঘুষা। পৌর শহর থেকে ইউনিয়ন ব্যাপী চায়ের দোকানের আড্ডা বেশ জমে উঠেছে। প্রায় সকলের মুখে একই আলোচনা। কাউন্সিল কেমন হবে? কে আসছেন নতুন নেতৃত্বে? নেতাকর্মীসহ কুলাউড়া সর্বস্থরের জনগনের মধ্যে বিরাজ করছে নানা জল্পনা কল্পনা। তবে খোদ আওয়ামীলীগের নেতারাই জানেন না কেমন হতে যাচ্ছে আগামীর কমিটি। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, দলের গতিশীলতা বাড়াতে যুবক ও তরুণদের সমন্ময়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটিকে পূর্ণাঙ্গ রূপ দেয়া হবে।

কুলাউড়া আওয়ামীলীগের আরেক প্রয়াত বীরনেতা মরহুম আব্দুল জব্বার। বৃহত্তর সিলেটের এই কৃতি সন্তান বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য, সাবেক সংসদ সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছিলেন। আব্দুল জব্বার ৬২ এর শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬ এর ছয়-দফা, ৬৯ এর গণ অভ্যুত্থান, ৭০ এর নির্বাচন এবং ৯০-এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সহ সকল গনতান্ত্রিক আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন।

তিনি কুলাউড়া থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক (১৯৬৪)। আমৃত্যু বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে, আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য জেল-জুলুম, নিযাতন উপেক্ষা করে বাংলার গনমানুষের মুক্তির লক্ষ্যে কাজ করেন। তারই ছেলে কুলাউড়ার দুই বারের উপজেলা চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলাম। আরেক ছেলে আবু জাফর রাজু বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রটোকল অফিসার-২ এর দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন।

আ স ম কামরুল ইসলাম তার পিতার দেখানো পথে চলতে আজও আছেন সাধারণ মানুষের পাশে। আসন্ন কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে উঠে আসছে আ.স.ম কামরুল ইসলাম এর নাম। তৃণমূল নেতাকর্মীরা তাকে এই পদের যোগ্য বলে দাবী করছেন। তরুণ প্রজন্মের ও সর্বজনীন প্রিয় ব্যাক্তি আ স ম কামরুল ইসলাম কখনো কোন অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে যুক্ত হতে করতে দেখা যায় নি। ক্লিন ইমেজের হওয়ায় এবার তাকেই সাধারণ সম্পাদক পদে দেখতে চাইছেন তারা।

কামরুলে রয়েছে দীর্ঘদিনর জনপ্রতিনিধিত্বের অভিজ্ঞতা। তিনি কয়েকবার জেলার শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। সব মিলিয়ে এবার সর্বস্তরের জনসাধারণ তাকে ওই পদে দেখতে চাচ্ছেন।

কুলাউড়ায় দীর্ঘ ১৫ বছর পর সম্মেলন ও কাউন্সিল হওয়ায় পদ প্রত্যাশীদের তালিকা বেশ দীর্ঘ। অনেক নতুন নেতৃত্বও মূল পদে আসার প্রতিযোগীতায় লিপ্ত। বিগত কমিটিতে ছিলেন কিন্তু দলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিলেন এমন অনেকেই নতুন কমিটিতে স্থান পাবেন না বলে দলের বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত