বুধবার, ৬ মে ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ বৈশাখ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

সম্পুর্ন ফেঞ্চুগঞ্জ লক ডাউন




বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মহামারী আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী হোম কোয়ারেন্টাইন, সামাজিক দূরত্ব এবং লক ডাউন নিশ্চিত করতে দিনরাত পরিশ্রম করেছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য সহ সরকারি উর্ধতন কর্মকর্তারা। এরই মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে ফেঞ্চুগঞ্জে কোন প্রকার অপৃতিকর ঘটনা ঘটেনি। এনিয়ে সন্তুষ্ট আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

পুলিশের কড়া নিরাপত্তা ও নজরদারিতে রয়েছে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা। প্রতিদিন নিয়মিত টহল এবং মানুষকে সচেতন করতে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে প্রশাসন। এরই মধ্যে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার নিম্ন ও মধ্যম আয়ের পরিবারগুলোর মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন প্রশাসন সহ বিভিন্ন বৃত্তবান ব্যক্তি। প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী খোলা রয়েছে ফার্মেসি, কাচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যের দোকান। তবে দোকানগুলোতে নেই কোন উপচে পড়া ভিড়। সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী হোম কোয়ারেন্টাইনের পরবর্তী দিনগুলোতেও থাকবে প্রশাসনের নজরদারি বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এব্যপারে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জানান- আমরা আন্তরিকতার সাথে কাজ করার চেষ্টা করছি যাতে করে মানুষ হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলেন। এবং এবিষয়-কে পূজি করে যাতে এক শ্রেণির অসাধু চক্র কোন ধরনের খাদ্য সংকট বা সিন্ডিকেট যাতে না করতে পারে সেদিকে কঠোর নজরদারি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা প্রশাসক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাখি আহমেদ। উল্লেখ্য – পেয়াজ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির কারণে তিনি কয়েকটি দোকানে অভিযান চালিয়ে জরিমানা আদায় করার পর থেকেই দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক রয়েছে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যোগ দিয়েছেন সিলেট ৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী। তিনি ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি মানুষকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাচতে দিয়ে যাচ্ছেন পরামর্শ। ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সাস্থ কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করে জানা যায় এখনো পর্যন্ত কোন করোনা আক্রান্ত রোগী নেই হাসপাতালে। তবুও তারা তাদের দায়িত্ব পালনে অনিহা করছেন না। অন্যদিকে ফেঞ্চুগঞ্জে সেনাবাহিনীর আসার পূর্বেই লক ডাউন নিশ্চিত করেছিল ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ। যা এখন পর্যন্ত বলবৎ রয়েছে। সব মিলিয়ে ফেঞ্চুগঞ্জে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সকল প্রকার ব্যবস্থা কার্যকর এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক। রবিবার সন্ধ্যায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার সকল দোকান লক ডাউন করেন শুধুমাত্র ফার্মেসি ছাড়া। এব্যপারে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল বাশার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান জানান- হোম কোয়ারেন্টাইন ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত কাচা বাজার ও মুদী দোকান বিকেল ৫ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত