শুক্রবার, ৮ মে ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিলেটে পুলিশ সুপারের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত




সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও এক আতংকের নাম ‘করোনা ভাইরাস’। ইতিমধ্যে ১৩৫ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। যার মধ্যে ১২ জন মৃত্যুবরণ করেছে।আগামীতেও এটি আরো প্রকোপ আকার ধারন করতে পারে।আর এই আশংকা যেন সত্যি না হয় তার জন্য করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে সরকার সময় সময়ে বিভিন্ন নির্দেশনা জারী করছে।যার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল মানুষকে নির্দিষ্ট সামাজিক দুরত্ব রেখে যার যার বাড়িতে অবস্থান করতে বাধ্য করা। এই কঠিন কাজটি করতে হচ্ছে পুলিশ সহ অন্যান্য বাহিনীকে। তাতে দৈনিন্দিন কর্ম হারিয়ে সবচেয়ে কঠিন পরিস্থিতির মুখামুখি হতে হয়েছে দিনমজুর সহ নিম্ন আয়ের এক শ্রেনীর মানুষের। সরকারী উদ্যোগের পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা কিংবা দায়িত্ব পালনের সময় বাস্তব উপলব্ধি থেকে নিম্ন আয়ের এসব মানুষের পাশে এগিয়ে এসেছে সিলেট জেলা পুলিশ।

জেলার শীর্ষ কর্তা ব্যক্তি থেকে শুরু করে অন্যান্য উর্দ্ধতন অফিসার এবং থানার অফিসার ইনচার্জগন জেলার বিভিন্ন এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ছুটে চলেছে।এরই ধারাবাহিকতায় আজ ৬ এপ্রিল (সোমবার) সকাল ১১ ঘটিকায় শহরের কাজীটুলা ও চৌকিদিঘী এলাকার প্রায় ৮০ জন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।সাথে ছিলেন পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত ইমাম মোহাম্মদ শাদিদ (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দক্ষিনের দায়িত্ব) ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মো: লুৎফর রহমান প্রমুখ।

এদিকে আজ দুপুর ১২ ঘটিকা থেকে বিকাল ৩ ঘটিকা পর্যন্ত পুলিশ সুপারের পক্ষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মো: মাহবুবুল আলম এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে জকিগঞ্জ থানার আটগ্রামস্থ গুচ্ছ গ্রাম এবং বিরশ্রী আশ্রয়ন প্রকল্পে ১২০ জন নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেন।পাশাপাশি বিকাল ৪ ঘটিকা থেকে ৬ ঘটিকা পর্যন্ত বিয়ানীবাজার থানার সামনে এবং ডুবাগস্থ গুচ্ছ গ্রামে তৃতীয় লিঙ্গ,বেদে সহ নিম্ন আয়ের ১৫০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়।খাদ্যসামগ্রী বিতরনে অন্যান্যের মধ্যে এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিয়ানীবাজার সার্কেল) সুদীপ্ত রায়,জকিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মীর আব্দুন নাসের, বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ অবনী শংকর কর প্রমুখ।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর বরাত দিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও মিডিয়া) লুৎফর রহমান জানান,করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে সিলেট জেলার প্রত্যেকটি সদস্য নিরলসভাবে কাজ করছে।পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে আমাদের সাধ্যমত কিছু খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিচ্ছি।দেশের ক্রান্তিকালে সমাজের বিত্তবানদের নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।তবে করোনা ভাইরাস সংক্রমন হতে নিরাপদ থাকতে প্রত্যেককেই সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ঘরে থাকতে হবে বলে যোগ করেন তিনি।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত