মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিমানের সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালু হওয়ায় বৃটেন প্রবাসীদের মধ্যে আনন্দের বন্যা.প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন।



আজিজুল আম্বিয়া.
অবশেষে সিলেট-লন্ডন-সিলেট রুটে সরাসরি বিমান চলাচল শুরু হওয়ায় সিলেটবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ও বহুল প্রতিক্ষিত
প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। এজন্য বৃটেন প্রবাসীদের মধ্যে বয়ে চলছে আনন্দের বন্যা.লন্ডনগামী সিলেটের যাত্রীদের হয়রানি ও ভোগান্তি কমবে বলে মনে করছেন বৃটেনে প্রবাসীরা।
গতকাল ৪ অক্টোবর রোববার দুপুরে সিলেটের ১৮২ এবং ঢাকার ৫৬ জন যাত্রী নিয়ে সিলেট থেকে লন্ডনের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় প্রথম বিমান বিজি-০০১। এই দিনটির জন্য দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয়েছে। আজকের দিনটি সিলেটিদের একটি ঐতিহাসিক এবং গুরুত্বপূর্ণ দিন হিসাবে বিবেচিত হবে।

ফ্লাইটের আগে সিলেট-লন্ডন রুটে সরাসরি ফ্লাইট চালু উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান, বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান, বিমান বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. মোকাব্বির হোসেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন,প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে বলেছিলেন বিমান নিয়ে জনসাধারণের অনেক নেতিবাচক ধারণা আছে। জাতীয় পতাকাবাহী প্রতিষ্ঠানটির অনেক বদনাম আছে। এই বদনাম থেকে বিমানকে রক্ষা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা অনুযায়ী বিমানে অনেক শুদ্ধি আনা হয়েছে। ফলে গেল অর্থবছরে বিমান ২শ’ কোটি টাকার ওপরে লাভ করেছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন,লন্ডনে বসবাসরত বাংলাদেশি প্রবাসীদের মধ্যে ৯০ ভাগ সিলেটি।তাই ওসমানী বিমানবন্দরে যাতে ‘৭৭৭’ উড়োজাহাজ ‘টেইক অফ’ করতে পারে সে ব্যবস্থা করতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছিলেন।সে লক্ষ্যে ওসমানী বিমানবন্দরকে আধুনিকায়ন ও পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করার কাজ শুরু হয়। গত এপ্রিলে রানওয়ের শক্তি বৃদ্ধির কাজ শেষ হয়েছে।গত ১ অক্টোবর নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী।রানওয়ে সম্প্রসারণের কাজও এগিয়ে চলছে। সবমিলিয়ে ওসমানী বিমানবন্দর হবে অত্যাধুনিক বিমানবন্দর।
মাহবুব আলী বলেন,সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালুর আগে যুক্তরাজ্যের ডিএফটি’র প্রতিনিধি দল দু’দফা ওসমানী বিমানবন্দর পরিদর্শন করে গেছে।আগামীতে সিলেট থেকে ইউরোপ, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনাও হবে। বিমানবন্দরের আধুনিকায়নের কাজ শেষ হলে বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলোও ওসমানীতে তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করবে বলে আমরা আশাবাদী।প্রতিমন্ত্রী আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ছাড়াও শিগগিরই বিমানের সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ফ্লাইট চালুর ব্যাপারে আশ্বাস দেন।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান বলেন, বিমানের সুন্দর সুন্দর নামগুলো প্রধানমন্ত্রীর দেয়া। তিনি বিমানে যাত্রা করলে সিট থেকে উঠে গিয়ে যাত্রীদের খবর নেন। প্রধানমন্ত্রী আকাশ যোগাযোগের ব্যাপারে খুবই আন্তরিক বলেই বিমানের বহরে নতুন নতুন উড়োজাহাজ সংযোজন হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, সবকিছুর পর বিমানের সীমাবদ্ধতা রয়েছে। এরপরও অত্যাধুনিক বিমান বহরে যুক্ত করে সেবা দিতে বদ্ধপরিকর। তবে সরকারের পাশাপাশি এটাকে টিকিটে রাখার দায়িত্ব আমাদের সকলের।বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেন, এ যাবৎ ৫৩টি দেশের সঙ্গে বিমান চলাচলের চুক্তি হয়েছে। বঙ্গবন্ধুও স্বপ্ন দেখেছিলেন বাংলাদেশে একদিন ‘এভিয়েশন হাব’ হবে। তার সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে সেই স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে।
এর আগে ২০১১ সনে এ রুটে সরাসরি ফ্লাইট চালুর কিছুদিন পরে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা না থাকায় সেটি আবার বন্ধ করে দেয়া হয়।বর্তমানে সিলেট বিমানবন্দরে রিফু অয়েলিং স্টেশন স্থাপনসহ আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চালুর জন্য এ বিমানবন্দরকে প্রস্তুত করা হচ্ছে।বর্তমানে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২ হাজর ১১৬ কোটি টাকা ব্যয় প্রথম পর্বের রানওয়ে সম্প্রসারণসহ একটি মেগা প্রকল্পের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। ২০২২ সালের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।বিমান সূত্র জানায়, এ রুটের যাত্রীরা বিমানের মোবাইল অ্যাপস, সব সেলস সেন্টার, ট্রাভেল এজেন্ট, বিমানের ওয়েবসাইট www.biman-airlines.com ও বিমানের কল সেন্টার (০১৭৭৭ ৭১৫৬১৩-১৬) থেকে সিলেট-লন্ডন-সিলেটসহ বিমানের সব রুটের শিডিউল ফ্লাইটের টিকিট কিনতে পারবেন।
এদিকে বৃটেন থেকে সিলেট টু লন্ডনে সরাসরি বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবীতে আন্দোলনের অন্যতম ক্যাম্পেইনার গ্রেটার সিলেট ডেভেলপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইন ইউকের ওয়েলসের সাবেক চেয়ারপার্সন ইউকে বিডি টিভির চেয়ারম্যান মৌলভীবাজার জেলার সাবেক ছাত্রনেতা বৃটেনের বিশিষ্ট কমিউনিটি লিডার ও সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর এক বিবৃতিতে সেমবার থেকে সিলেট টু লন্ডন সরাসরি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট স্বাভাবিক হওয়ার সংবাদকে স্বাগতম জানিয়ে মানণীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা মানণীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী. বিমানমন্ত্রী প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বৃটেনে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সহ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে বৃটেন প্রবাসী সকল ক্যাম্পেইনারদের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বাংলাদেশ বিমানের ভাড়া কমানো ও সেবার মান আর ও উন্নত করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন।।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত