রবিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

আইনাঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রাউড টু বি সিলেটি ইউকের নেতৃবৃন্দ;।




বদরুল মনসুর.
বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের জ্যৈষ্ঠ আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল দেশের আইনাঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র
ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনাসহ তাঁর শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন প্রাউড টু বি সিলেটি ইউকের নেতৃবৃন্দ।
বৃটেনের বিভিন্ন শহর থেকে শোক বার্তায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ব্যাবসায়ীদের প্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে সাক্ষর করেছেন বৃটেনের কমিউনিটি লিডার নুরুল ইসলাম মাহবুব. ৭১ এর বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল কাইয়ুম কয়সর.বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আলহাজ্ব সুরাবুর রহমান. খন্দকার আব্দুল মছব্বির এমবিই আব্দুর রকির সিকদার.হারুনুর রশিদ. শেখ শাহজাহান আহমদ তরফদার. সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর. হাবিবুর রহমান রানা. ড. মুজিবুর রহমান. জামাল হোসেন. এডভোকেট মীর গোলাম মোস্তফা.আলহাজ্ব ময়না মিয়া. আব্দুর রউফ. মোহাম্মদ নুনু মিয়া. নজরুল ইসলাম. ফারুক আলী, কদর উদ্দীন, কাজী জহিরুল ইসলাম সৈয়দ মুজিবুর রহমান. নাজমুল ইসলাম. হেলাল আহমদ তফাদার. সৈয়দ আবু সাঈদ আহমদ. সৈয়দ আখলাকুল আম্বিয়া রাবেল. মোহাম্মদ নুনু মিয়া. মসুদ আহমদ. ফয়জুর রহমান চৌধুরী. এম আসরাফ মিয়া. ফুলজার মিয়া. বদরুল ইসলাম. নুরুল ইসলাম. কবি দুধ মিয়া. সাংবাদিক শাহান চৌধুরী. ফারুক আলী. মিছবাহ তরফদার, শিপন মিয়া, মোশাহিদ আহমদ আশরাফ মিয়া, আয়াজুল করীম, হেলাল আহমেদ, বদরুল ইসলাম,শেখ তাহির উল্লাহ.আব্দুল মালিক. এম এ সালাম লোকমান হোসেন. আজাদ উদ্দিন. শাজানুর রাজা মোহাম্মদ মুজিব. লিয়াকত আলী. শেখ মোহাম্মদ আনোয়ার. আসকর আলী. শাহ শাফি কাদির. আসাদ মিয়া. মুজিবুর রহমান. এবি রুনেল. রকিবুর রহমান. আবু আকলাকুল আলম সেবু.আয়াসুল করিম. বদর চৌধুরী বাবর. আব্দুর রুউফ তালুকদার. শিপন আহমদ. কামাল আহমদ. মোস্তফা কামাল বাবলু. সাংবাদিক জয়নাল ইসলাম.এস কে করিম সিপার. আশরাফুজ্জামান পারভেজ. সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম বেলাল. সাংবাদিক কামরুল ইসলাম. ময়নুল ইসলাম.নুর আহমদ কিনু. মুমিন খান.শফিক মিয়া. কদর উদ্দিন. আব্দুর রহিম রনজু. গিয়াস উদ্দিন. সাংবাদিক খায়রুল আলম লিংকন. আলমগীর আলম. জহির আলী ফরহাদ মিয়া. সৈয়দ মিসবাউল করিম সায়েম.সহ প্রাঊড টু বি সিলেটি ইউকের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। শোক বিবৃতিতে মরহুম রফিকুল হকের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান । নেতৃবৃন্দ বলেন অ্যাটর্নি জেনারেল রফিক-উল হকের মৃত্যুতে দেশবাসী একজন মেধাবী ও গুরুত্বপূর্ন নাগরিককে হারালো,যার ক্ষতি কোনোদিন পূরন হবার নয় তিনি ছিলেন বাংলাদেশের আইনাঙ্গনের উজ্জ্বল এক নক্ষত্র ; তিনি ছিলেন কালের স্বাক্ষী একজন নীতিবান মানুষ। তিনি সত্য কথা বলতে কখনো দ্বিধা করতেন না। তিনি জীবনে অনেক ভাল কাজ করেছেন ।অনেক চ্যারিটি সংস্খার মাধ্যেম গরীব দু:খি মানুষের সেবা করেছেন। প্রচুরসংখ্যক মানুষকে ফ্রি আইনী সেবা দিয়েছেন এই ক্ষণজন্মা পুরুষকে মহাণ আল্লাহু রাব্বুল আলামীন যেনো জান্নাতবাসী করেন এই দোয়া করার জন্য সবার প্রতি বিনীতভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন। এখানে উল্লেখ্য যে ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের জন্ম ১৯৩৫ সালে কলকাতার সুবর্ণপুর গ্রামে। ১৯৫৫ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক, ১৯৫৭ সালে দর্শন বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ১৯৫৮ সালে এলএলবি পাস করেন রফিক-উল। ১৯৬২ সালে যুক্তরাজ্য থেকে বার এট ল’ সম্পন্ন করেন তিনি।
১৯৬৫ সালে সুপ্রিম কোর্টে এবং ১৯৭৩ সালে আপিল বিভাগের আইনজীবী হিসেবে কাজ শুরু করে দীর্ঘ প্রায় ৬০ বছর এ পেশায় ছিলেন তিনি। বর্ণাঢ্য পেশাজীবন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক হাসপাতাল সহ বিভিন্ন দাতব্য সংস্থায় দান করেছেন তার সব অর্থ। বিনা পয়সায় দায়িত্ব পালন করেছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা হিসেবে।
১৯৯০ সালের ৭ই এপ্রিল থেকে ১৭ই ডিসেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন রফিক-উল হক।
বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, পাকিস্তান ও ব্রিটেনের নাগরিক হয়েছিলেন তিনি।
সাবেক চার প্রধান বিচারপতি তার অধীনে চেম্বারে কাজ করেছেন।
সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক ও সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকারও তার সঙ্গে কাজ করেছেন।
বিনা পয়সায় অনেকে মামলা লড়ে আলোচিত হয়েছিলেন রফিক-উল হক। স্পষ্ট ও সাবলীল আইনি যুক্তিতর্কের জন্য তার বিশেষ পরিচিতি ছিলেন দেশের আইনাঙ্গনের এই উজ্জ্বল নক্ষত্র ;।।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত