বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

ইউকে আওয়ামী লীগ কভেন্ট্রি শাখার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।



.বদরুল মনসুর.
ঐতিহাসিক ১০ই জানুয়ারী ১৯৭২ইং সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ কভেন্ট্রি শাখার উদ্যোগে গত ১৪ জানুয়ারি কভেন্ট্রি আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোকাদ্দাছ আলীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিনের পরিচালনায় এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সুলতান মাহমুদ শরীফ. প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব নঈম উদ্দিন রিয়াজ. এছাড়া ও বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা আব্দুল আহাদ চৌধুরী. যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের স্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা যুবনেতা স্পষ্টবাদী বক্তা এস এম সুজন. যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা অনলস্পর্শী বক্তা জনাব এম এ সারব আলী. যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সদস্য জাস্টিস ফর বাংলাদেশ জেনোসাইড ১৯৭১ ইন ইউকের সভাপতি মিডিয়া ব্যক্তিত্ত্ব মোহাম্মদ মকিস মনসুর. মিডল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি অত্যন্ত স্বজ্জন ব্যক্তিত্ত্ব আলহাজ হিফজুর রহমান খান. নর্থাম্পটন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এম এ রউফ বেডপোর্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিব উল্যা ইপ্সুইচ আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ সেন্ডওয়েল আওয়ামী লীগের সভাপতি বেলাল বদরুল মিডল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম বেলাল. নর্থাম্পটন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল হুসেইন,. ইপ্সুইচ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা আহমেদ আবুল লেইছ. বার্মিংহাম আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোস্তফা কামাল বাবলু. বার্মিংহাম আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ কামাল আহমদ মিডল্যান্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসন. বার্মিংহাম আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ফরুল ইসলাম প্রচার সম্পাদক নাছির উদ্দীন শ্যামল সদস্য ছানাউর রহমান ছানা .মিডল্যান্ড আওয়ামী লীগ নেতা শিমুল খন্দকার.কভেন্ট্রি আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহস ভাপতি চৌধুরী অনর উদ্দিন জাহিদ সহ সভাপতি আলহাজ্ব দেওয়ান আলী আসগর . সহ সভাপতি কাউন্সিলর সলিসটর মায়া আলী. সহ সভাপতি আলহাজ্ব জনাব এম এ সালাম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব বাদশা মিয়া সদস্য এম এ ফাত্তাহ ও সদস্য আব্দুল আহাদ সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
সভার শেষ দিকে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন নর্থাম্পটন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এম এ রউফ।
পরিশেষে সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সভার সভাপতি জনাব মোকাদ্দাছ আলী সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।
প্রধান অতিথি যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সুলতান মাহমুদ শরীফ.
তাঁর সংক্ষিপ্ত ভাষণের শুরুতে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা, স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, রাজনীতির মহাকবি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে তিনি বলেন, দীর্ঘ নয়মাস স্বৈরাচার পাকিস্তানি কারাগারে অন্ধ প্রকোস্টে বন্দীদশায় জীবন-মৃত্যুর মুখোমুখি হয়ে স্বাধীনতাকামী বাঙালি এবং বিশ্ব নেতৃবৃন্দের চাপের মুখে রাজনীতির এই মহাকবি ১৯৭২ এর ১০ জানুয়ারি কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের পবিত্র মাটিতে পা রেখে বীর বাঙালির হাজার বছরের কাঙ্খিত বিজয়কে পূর্ণতা দান করেন। জাতির জনকের স্বপ্নের সোনারবাংলা বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধু তনয়া আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার মানবতার জননী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশ্বনেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার উন্নয়ন- অগ্রযাত্রায় সামিল হয়ে সকলকে দেশের উন্নয়নে কাঙ্খিত ও দৃশ্যমান অবদান রাখার আহবান জানান।
প্রধান বক্তা ও বিশেষ অতিথি সহ সকল বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতাযুদ্ধের মহান বিজয়ের পূর্ণতা পায়। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর বাংলাদেশ প্রবেশ করে আলোকিত অভিযাত্রায়।
বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছে, অন্যদিকে বঙ্গবন্ধু তখন পাকিস্তানের কারাগারে প্রহসনের বিচারে ফাঁসির আসামি হিসেবে কবরের পাশে মৃত্যুর প্রহর গুনছিলেন।
বক্তারা বলেন বাঙালিদের চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হওয়ার পর বিশ্ব নেতারা বঙ্গবন্ধুর মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠেন। পরাজিত পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী আন্তর্জাতিক চাপে শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুকে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি মুক্তি দিতে বাধ্য হয়।
তারা বলেন, ২৯০ দিন পাকিস্তানের কারাগারে মৃত্যুর প্রহর গণনা শেষে লন্ডন থেকে দিল্লি হয়ে তিনি ১০ জানুয়ারি ঢাকায় পৌঁছেন। বঙ্গবন্ধু শুধু বাঙালির নেতা ছিলেন না উল্লেখ করে বক্তারা আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু তার বিস্ময়কর নেতৃত্বের ক্ষমতায় বিশ্ব নেতাদের কাছেও অবিসংবাদিত নেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছেন, বাঙালিকে গৌরবান্বিত করেছেন।
বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা রেসকোর্স ময়দানে প্রায় ১৭ মিনিট জাতির উদ্দেশে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর সেদিনের ভাষণটি ছিল জাতির জন্য দিকনির্দেশনা। বাংলাদেশের আদর্শগত ভিত্তি কী হবে, রাষ্ট্র কাঠামো কী ধরনের হবে, পাকিস্তানি বাহিনীর সাথে যারা দালালী করেছে তাদের কী হবে, বাংলাদেশকে বহির্বিশ্ব স্বীকৃতি দেয়ার জন্য অনুরোধ, মুক্তিবাহিনী, ছাত্র সমাজ, কৃষক, শ্রমিকদের কাজ কী হবে এসব বিষয়সহ বিভিন্ন দিক নিয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন বলে উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধুর দেশ গড়ার সংগ্রামের সেদিনের ডাকে রেসকোর্স ময়দানে উপস্থিত লাখ লাখ মন্ত্রমুগ্ধ দু’হাত তুলে সেই সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেছেন বলে অভিমত ব্যাক্ত করেছেন।।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত