মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আজহারীকে ব্রিটেনে প্রবেশ না করতে দেবার সিদ্ধান্তে অনড় থাকতে হোম অফিসের প্রতি আবেদন জানিয়েছে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটি।




মকিস মনসুর,
একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখা বিতর্কিত মিজানুর রহমান আজহারী সহ সকল সাম্প্রদায়িক ধর্মাচারীদের ব্রিটেনে প্রবেশ না করতে দেবার সিদ্ধান্তে অনড় থাকতে ব্রিটিশ হোম অফিসের প্রতি আবেদন জানিয়েছে। গত
২৯ অক্টোবর শুক্রবার লন্ডন সময় সন্ধ্যে সাত ঘটিকায় পূর্বলন্ডনের বাংলাটাউনে একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নির্মুল কমিটি ব্রিটিশ হোম অফিসের প্রতি এই আবেদন জানায়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয় ভবিষ্যতে এইসব মৌলবাদীদের ব্রিটেনে প্রবেশের আগে সরকারকে অবশ্যই সাম্ভাব্য রিস্ক এসেসমেন্ট করতে হবে। বাংলাদেশে বুদ্ধিজীবি হত্যার নায়ক চৌধুরী মইনুদ্দিন সহ ব্রিটেনে আশ্রয় নেয়া সকল যুদ্ধাপরাধী ও সাজাপ্রাপ্ত আসামীদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো ব্যবস্থা করতে হবে। ব্রিটেনের প্রতিষ্ঠিত গণমাধ্যম ও সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় মিজানুর রহমান আজহারীর মত সাম্প্রদায়িক ও অন্যধর্ম বিদ্ধেসী ধর্মব্যবসায়ীদের বৃটেনে এসে ওয়াজ মাহফিলের নামে যাতে আমাদের সন্তানদের মগজ ধোলাই করতে না পারে সেদিকে সথর্ক থাকতে মিডিয়ার প্রতি আহবান জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় আপাততঃ মিজানুর রহমান আজহারীর আগমন রহিত হয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে কোন উগ্রবাদী বৃটেনে প্রবেশ করে ম্যালটিক্যালচারাল সোসাইটিতে শান্তি বিঘ্নিত করতে না পারে এ ব্যাপারে কমিউনিটির সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় লন্ডনের আইঅন টোলভিশন ব্রিটেনের কতিপয় মৌলবাদী ও স্বাধীনতা বিরোধী সংগঠনের সহযোগীতায় ৩১ অক্টোবর ২০২১ স্থানীয় একটি হলে বিতর্কিত ধর্মচারী হিন্দু-ইহুদী,খৃষ্টান বিদ্ধেসী মিজানুর রহমান আজহারীকে প্রধান অতিথি করে একটি সমাবেশের আয়োজন করেছিল । একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটি সহ শতাধিক সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিবাদের মুখে ব্রিটিশ হোম অফিস আজহারীকে বিমানে উঠার আগেই তার ভিসা বাতিল করে। আমরা হোম অফিসের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। বাংলাদেশে যখন অনেক এলাকায় সাম্প্রদায়িক ঘৃণ্য হামলার শিকার হাজার হাজার মাইনরিটি নীরিহ মানুষ । ঠিক এই সময় বাংলাদেশ থেকে স্বেচ্ছায় নির্বাসিত যুদ্ধাপরাদীদের রুহানী পুত্র বিতর্কিত মিজানুর রহমান আজহারীকে বৃটেনে আমন্ত্র জানানো স্বাধীনতা বিরোধীদের ষঢ়যন্তেরই একটি অংশ। বৃটেনের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে চায়। এই দেশে উগ্রবাদের কোন স্থান নেই । বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দেশ থেকে উগ্রবাদীরা এদেশে এসে আমাদের সন্তানদের মগজ ধোলাই করছে। অন্যধর্ম বিদ্ধেসীদের এজাতীয় উসকানী মূলক বক্তব্য শুনে নবপ্রজন্মের অনেকেই উগ্রবাদের দিকে ধাবিত হচ্ছে, সাম্প্রতিক সময়ে একজন সোমালিয়ন উগ্রবাদীর বক্তব্যে আকৃষ্ট হয়ে এক সোমালিয়ান একজন ব্রিটিশ এমপিকে তার নিজ অফিসে খুন করে। অনদিকে রোশনারা চৌধুরী নামের এক বাঙ্গালী তরুনী ব্রিটিশ এমপি ষ্টিফেন ষ্টীমকে চুরিকাঘাত করে। রোশনারার সাাজা হয় সে বর্তমানে জেলে আছে। ব্রিটেনের মালটিক্যালচারাল সোসাইটির মানুষ চায়না বৃটেনে ধর্মাচারীদের কারণে শান্তি বিঘিœত হউক। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে সংগঠনের সেক্রেটারী রুবী হক, সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন নির্মুল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য আনহার আহমদ উল্লাহ, ইউকের সভাপতি সৈয়দ এনামুল হক, মতিয়ার চৌধুরী , হরমুজ আলী,জামাল আহমদ খান, শাহ বেলাল, সৈয়দা নাজনীন সুলতানা শিখা সাংবাদিক আব্দুল হামিদ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত