Wednesday, June 20, 2018

বড় ছেলে দেখে মুগ্ধ সুবর্ণা মুস্তাফা

বিনোদন ডেস্ক:: মঞ্চ-টিভি নাটক দিয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। গুণী এই অভিনেত্রী গেল ঈদে প্রচার হওয়া‌ আলোচিত টেলিছবি ‘বড় ছেলে’ দেখেছেন। এটি দেখে তিনি মুগ্ধ হয়েছেন। এই টেলিফিল্মটির গল্প ও অভিনয় শিল্পীদের প্রশংসা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন সুবর্ণা।
তিনি লিখেছেন, ‘শুনলাম ‘বড় ছেলে’ ইউটিউবে প্রায় বিশ লাখ ভিউয়ার্স হয়েছে। আজ (গতকাল) দেখলাম টেলিছবিটি। দেখার পর আশান্বিত বোধ করছি। সুনির্মিত, সুঅভিনীত, গোছানো একটি প্রযোজনা।’
সুবর্ণা মুস্তাফা আরও লেখেন, ‘সাধারণ মানুষের খুবই পরিচিত জীবন-যাপনের গল্প। খুবই আটপৌরে, খুবই বাস্তব। নাটকের প্রতিটি মুহূর্ত, প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত এক ধরনের মায়া তৈরি করে। গল্প এগিয়ে যায় সুন্দর। বহুদিন পর একটা নাটক শেষ হবার পর মনে হলো আর একটু হতো।’
পরিচালককে অভিনন্দন জানিয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা লেখেন, ‘অভিনন্দন নাটকের প্রতিটি শিল্পী ও কলাকুশলীদের। অবশ্যই অপূর্ব এবং মেহজাবিনকে আলাদাভাবেই ধন্যবাদ দিতে চাই। কাতুকুতু দেওয়া হাসির নাটক, নানা ধরনের গিমিক, এই সব কিছুর মাঝখানে ‘বড় ছেল’ স্বস্তি দিলো। দর্শক আবার প্রমাণ করলো ভালো কে ভালো বলতে তারা সব সময় প্রস্তুত।’
সুবর্ণা মুস্তাফার মুগ্ধতা ছড়ানো স্ট্যাটাসে মন্তব্য করেছেন মেহজাবিন। কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে এই লাক্সতারকা লিখেছেন, ‘অনেক ধন্যবাদ ম্যাম। আপনি আমার আদর্শ, আপনার কাছ থেকে এমন মোটিভেশন কথাগুলো আমার ভবিষ্যতে আরো ভালো কাজে উৎসাহ যোগাবে। আমাকে উৎসাহ দেয়ার জন্য আবারো ধন্যবাদ ম্যাম।’
আরো মন্তব্য করেছেন নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান। তিনিও সুবর্ণা মুস্তাফার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে লিখেছেন, ‘ধন্যবাদ ম্যাডাম। আমি সত্যি আশির্বাদপুষ্ট, আপনার থেকে এমন প্রেরণা পেয়ে। দোয়া করবেন আগামীতেও যেন আরো ভালো কাজ উপহার দিতে পারি।’
‘বড় ছেলে’টেলিছবিটি রচনা এবং পরিচালনা করেছেন মিজানুর রহমান আরিয়ান। এখানে অভিনয় করেছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব এবং মেহজাবিন চৌধুরী। ঈদের চুতুর্থদিন এনটিভিতে এটি প্রচারিত হয়েছে। এরপর ইউটিউবে মাত্র ৮ দিনে দেখেছেন প্রায় ৩৩ লাখ মানুষ।
পরিচালক জানালেন, দর্শকদের অনুরোধে আগামী বৃহস্পতি, শুক্র, শনিবার রাত ১১টায় বিরতিহীনভাবে চ্যানেল নাইনে প্রচার হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত

সর্বশেষ সংবাদ

June 2018
M T W T F S S
« May    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930