বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রবিবার থেকে লাগাতার হরতালের হুমকি হেফাজতের



30681_hefa 2

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটিসহ ২৭টি সংগঠনের ডাকা ২৪ ঘণ্টার হরতাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মধ্যে প্রত্যাহার করা না হলে ৭ এপ্রিল রবিবার থেকে লাগাতার হরতালের হুমকি দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর লালবাগ শাহী মসজিদ মাদ্রাসায় ৬ এপ্রিল লংমার্চ পালন উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির আমির আল্লামা শাহ আহমাদ শফি এই ঘোষণা দেন।
সংবাদ সম্মেলনে শাহ আহমাদ শফি বলেন, শুধু হরতাল প্রত্যাহার নয়, লংমার্চ কর্মসূচিতে বাধা এলেও লাগাতার হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। তিনি জায়নামাজ ও তসবিহ নিয়ে আল্লাহর জিকির করতে করতে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করার আহ্বান জানান।
সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা শফির লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, লংমার্চ কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করতে ৬ এপ্রিল হরতাল কর্মসূচি দেয়া হয়েছে। সরকারের মদদে ডাকা হরতাল প্রত্যাহার করা না হলে ৭ এপ্রিল থেকে লাগাতার হরতাল চলবে।
পরিবহন মালিক সমিতিকে বাস ভাড়া না দেয়ার জন্য চাপ দেয়া হয়েছে। কোনো প্রতিবন্ধকতা আমাদের রুখতে পারবে না। সবাইকে ৬ এপ্রিল সকাল ১০টায় মতিঝিলের শাপলা চত্বরে উপস্থিত হওয়ার আহ্বান জানাই।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও বলি, এটা কারো বিরুদ্ধে আন্দোলন নয়, কাউকে গদিতে বসানোর জন্যও এ আন্দোলন নয়। ঈমানি দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবেই লংমার্চ কর্মসূচি দেয়া হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মাওলানা জোনায়েদ বাবুনগরী, খেলাফত আন্দোলনের উপদেষ্টা আহমদুল্লাহ আশরাফ, মাওলানা আশরাফ আলী, ইসলামী ঐক্যজোটের নেতা মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, খেলাফত মজলিসের আমির হাবিবুর রহমান, মাওলানা ইসহাক, মুফতি মুহম্মদ ওয়াক্কাস।
উল্লেখ্য, হেফাজতে ইসলামের আগে ঘোষিত লংমার্চ কর্মসূচি প্রতিহত এবং জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে সারাদেশে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হরতাল ডাক দিয়েছে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সেক্টর কমা-ার্স ফোরাম ও পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদসহ ২৭টি সংগঠন।