সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বড়লেখা গ্যারেজসহ একটি প্রাইভেট কার পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা



Barlekha Pic Private Car Fire

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখা থানার এক দালাল প্রতিপক্ষের গ্যারেজসহ একটি প্রাইভেট কার পুড়িয়ে দিয়েছে। গাড়ির মালিকের পরিবারের আয়ের একমাত্র অবলম্বন পুড়িয়ে দেয়ায় হাহাকার বিরাজ করছে। এ ঘটনায় ওই দালালকে আটক করেছে থানা পুলিশ। এলাকাবাসী, থানা পুলিশসহ একাধিক সূত্র জানায়, বড়লেখা সদর ইউনিয়নের সোনাতুলা গ্রামের মুজাহিদ আলীর ছেলে বড়লেখা থানার দালাল ও আওয়ামীলীগ নামধারী আব্দুল জব্বার প্রতিহিংসামূলক ১০ এপ্রিল বুধবার ভোররাত সাড়ে ৩টায় একই গ্রামের শাহিন আহমদের বাড়িতে গ্যারেজে রাখা প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্টো-ভ-৯৪৩৮) আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ গাড়ির মালিকের অভিযোগের প্রেড়্গিতে আব্দুল জব্বার (৩৬) কে আটক করেছে। ক্ষতিগ্রস্থ প্রাইভেট কারের মালিক শাহিন আহমদ জানান, তিনি বড়লেখা থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই দীলিপ কান্ত নাথকে নিয়ে সিলেট যান। তাকে থানায় নামিয়ে দিয়ে রাত ৩টায় বাড়িতে যান। সাড়ে ৩টার দিকে ঘরের বাইরে বাড়ির গৃহপালিত পশুর শব্দ শুনতে পেয়ে তার ভাই আব্দুল জলিল বের হন। এ সময় আব্দুল জব্বারকে গাড়ির পেছনে দেখতে পান। তাকে ধরতে উদ্যত হলে সে ম্যাগলাইট দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে সকালে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি ম্যাগলাইট উদ্ধার করে। পরে ক্ষতিগ্রস্থ গাড়ির মালিকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশের এএসআই শরীফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বুধবার সকাল ৭টায় আব্দুল জব্বারকে তার বাড়ি থেকে আটক করে। শাহিন আহমদের পিতা সোয়া মিয়া (৬০) কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, আমাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনের এই গাড়িটি পুড়িয়ে দেয়ায় প্রায় ৬ লাখ টাকার ড়্গতি হয়েছে। গাড়িতে একটি চালের বস্তাও ছিল। সেটিও পুড়ে যায়। বর্তমানে তাদের পথে বসার উপক্রম হয়েছে। তারা এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টানত্মমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। 
এ ব্যাপারে বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল হাসান জানান, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের লোকজনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।