সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ার ঝিমাই চা বাগানের ভূমি খাসিয়াদের অবৈধ দখলের প্রতিবাদে শ্রমিক সমাবেশ



Kulaura somabes

কুলাউড়া প্রতিনিধি : কুলাউড়ার ঝিমাই চা বাগানের শ্রমিকদের উপর হামলা ও বাগানের ভূমি অবৈধ ভাবে ঝিমাই পুঞ্জির খাসিয়াদের দখল করার প্রতিবাদে গত রোববার বাগান মাঠে এক শ্রমিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি জমির আলীর সভাপতিত্বে ও সেলিম মিয়ার পরিচালনায় উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটি নেতা ও জুড়ী ভ্যালী সভাপতি মুরালিধর গোয়াল। ঝিমাই চা বাগান পঞ্জায়েত সহ সভাপতি সিরাজ মিয়া অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত ঝিমাই পুঞ্জির খাসিয়ারা বাগানের লিজকৃত জমির জোর পূর্বক অবৈধভাবে ভোড়গ দখল কওে পান চাষ ও বসবাস করে আসছে। নতুন করে কিছুদিন পূর্বে বাগানের দেওয়া সীমানা ভেঙ্গে ফেলে সেকশনের নিকট কলাগাছ রোপন কওে এবং তার কাটা দিয়ে বেশ কিছু জমি দখলে নেয়। বিভিন্ন সময় সেকশনে কাজে থাকা অবস্থায় সাধারণ শ্রমিকদের ওপর হামলা ও প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করছে এহেন পরিস্থিতিতে বাগানের শ্রমিকরা কাজে যেতে ভয় পাচ্ছে। আফিয়া বেগম বলেন আমাদের বাড়ি ঘরে খাসিয়ারা রাতে চুরি সংঘটিত করছে কিন্তু আমরা কোন বিচার পাচ্ছিনা। ইউছুফ মিয়া বলেন বাগানে জায়গার অভাবে আমরা নতুন করে ঘর তৈরী করতে পারছি না। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য রাম বিলাস দোষার, বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ জোবায়ের খান, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটি নেতা আব্দুল খালেক, লংলা ভ্যালী প্রতিনিধি গোপাল কানু, গাজীপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সেক্রেটারী ফিলমন সান্ডী, অশোক কুমার গোয়ালা, ক্লিভডন চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি মহালাল গোয়ালা, রাঙ্গিছড়া চা বাগানের পঞ্চায়েত সভাপতি শ্রী কিসন গোয়ালা, ঝিমাই চা বাগান পঞ্চায়েত সেক্রেটারী ইউছুফ মিয়া, শ্রমিক মাখন কল, মনোয়ারা বেগম, বিমলা মুন্ডা, যমুনা মুন্ডা প্রমুখ। বক্তারা কেদারপুর টি কোং লিঃ পরিচালিত ঝিমাই চা বাগানের লিজকৃত জমি ঝিমাই পুঞ্জির খাসিয়ারা জোর পূর্বক দখলে নেওয়া ও বিভিন্ন সময় সাধারণ শ্রমিকদের উপর হামলা, লুটপাটের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। প্রধান অতিথির বক্তব্যে শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা মুরালি ধর গোয়ালা শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের ওপর হামলা, হুমকি ও ঘরে চুরি কোন অবস্থায় মেনে নেওয়া যায়না। জমি নিয়ে যেহেতু মামলা আদালতে বিদ্যমান রয়েছে সেহেতু আপনার ধৈয্য করে শান্ত থাকুন। ভবিষ্যতে যদি আপনাদের ওপর খাসিয়া বা অন্য কেউ আক্রমন করে তাহলে সকল চা বাগানের শ্রমিকদের নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলা হবে। উক্ত সমাবেশে লংলা ও জুড়ী অঞ্চলের বিভিন্ন বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ শ্রমিকরা অংশগ্রহণ করে ঝিমাই চা বাগানের শ্রমিকদের সাথে সংহতি প্রকাশ করেন।