শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ



31983_images

ডেস্ক রিপোর্ট : বোস্টন ম্যারাথনে নিহতদের প্রতি সম্মান জানানোর নিদর্শনস্বরূপ শনিবার সূর্যাস্ত নাগাদ হোয়াইট হাউস, সকল ফেডারেল ভবন, সামরিক স্থাপনা ও যুদ্ধজাহাজে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে একথা বলা হয়। 
মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বলেন, ২০১৩ সালের ১৫ এপ্রিল ও বোস্টনে নিষ্ঠুর সহিংসতায় নিহতদের প্রতি সম্মান জানাতে আমি নির্দেশ দিচ্ছি যে, হোয়াইট হাউস, সকল সরকারি ভবন ও স্থাপনায় ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল সূর্যাস্ত নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে। তিনি বলেন, এফবিআই একটি সন্ত্রাসবাদী তৎপরতা হিসাবে এ বোমা হামলার তদন্ত করছে।
প্রেসিডেন্টের নির্দেশে ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) পূর্ণগতিতে বোস্টন ম্যারাথনে বোমা হামলার রহস্য উদ্ঘাটনে তদন্ত শুরু করেছে। এফবিআই ঘোষণা করেছে যে, দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করার জন্য পৃথিবীর শেষপ্রান্ত পর্যন্ত তন্নতন্ন করে তল্লাশি চালানো হবে। এদিকে পাকিস্তানি তালেবান বিদ্রোহীরা দাবি করেছে যে, বোস্টনে সন্ত্রাসী হামলায় তারা জড়িত নয়। তবে এ গ্রুপ টাইমস স্কোয়ারে বোমা হামলার চক্রান্তে জড়িত ছিল।
সোমবার বাংলাদেশ সময় রাতে বোস্টনে ম্যারাথন দৌড়ে সস্ত্রাসী হামলায় ৩ জন নিহত এবং শতাধিক আহত হয়। লস এঞ্জেলেস থেকে নিউইয়র্ক পর্যন্ত শহরগুলোতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তদন্তকারীরা ঘটনাস্থলের বেসরকারি ভিডিও, অডিও এবং স্টিল ছবি সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। প্রেসিডেন্ট ওবামার বোস্টনে বোমা হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন। তবে তিনি তার প্রতিক্রিয়ায় ‘সন্ত্রাস’, ‘সন্ত্রাসবাদ’ শব্দগুলোর ব্যবহার সতর্কতার সঙ্গে এড়িয়ে গেছেন।
সোমবার রাতে হোয়াইট হাউসে এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন, যারা বোমা হামলা চালিয়েছে আমরা তাদের খুঁজে বের করবো। কেন তারা বোমা হামলা চালিয়েছে তাও আমরা বের করবো। কোনো দায়িত্বশীল ব্যক্তি বা গ্রুপ এ ধরনের কাজ করতে পারে না।
ওবামা প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা বোস্টনে বোমা হামলাকে একটি সন্ত্রাসবাদী তৎপরতা হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন। বোস্টনে এফবিআইয়ের এজেন্ট রিচার্ড ডেস লাউরিয়ার্স বলেছেন, তদন্তকারীরা বিপুলসংখ্যক আলামত খুঁজে পেয়েছেন, প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ এবং ঘটনার ছবি বিশ্লেষণ করছেন।
তিনি বলেছেন, এ জঘন্য হামলার জন্য যারা দায়ী তাদের খুঁজে বের করতে আমরা পৃথিবীর শেষপ্রান্ত পর্যন্ত ছুটে যাবো। তাদের বিচারের মুখোমুখি করতে আমরা সম্ভব সবকিছু করবো। একজন ইউরোপীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তা বলেছেন, প্রাথমিক তদন্তে আভাস পাওয়া যাচ্ছে যে, এটা কোনো আত্মঘাতি হামলা ছিল না। ম্যাসাচুসেটসের গভর্নর ডেভাল প্যাট্রিক বলেছেন, ম্যারাথন সাইটে কোনো অবিস্ফোরিত বোমা পাওয়া যায়নি।
মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হ্যাগেল বোস্টনে বোমা হামলাকে একটি নিষ্ঠুর সন্ত্রাস হিসাবে উল্লেখ করেছেন। পাকিস্তান সরকার হামলার নিন্দা করেছে। তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) মুখপাত্র এহসানুল্লাহ এহসান মঙ্গলবার অজ্ঞাত স্থান থেকে টেলিফোন সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের ওপর হামলায় বিশ্বাস করি। তবে আমরা এ হামলায় সম্পৃক্ত নই। তিনি আরো বলেন, এ বোমা হামলার সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। তবে আমরা যেখানে সম্ভব সেখানে তাদের ওপর হামলা চালাবো।