রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বর্তমান সরকার শিক্ষাক্ষেত্রে যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ গ্রহন করেছে -আলী আব্বাছ খাঁন এমপি



ali abbas mp

কুলাউড়া প্রতিনিধি : নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার শিক্ষাক্ষেত্রে যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ গ্রহন করেছে, যাতে বিরোধী দলও সমালোচনা করতে ভয় পাচ্ছে। ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ৩৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারী করেছিলেন আর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৯ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারীকরন করেছেন। এছাড়াও বর্তমান সরকার সারা দেশে স্কুলবিহীন গ্রামে ১৫হাজার স্কুল নির্মাণ করে দিয়ে এলাকার ছাত্র/ছাত্রীদের লেখাপড়ার সুযোগ করে দিচ্ছেন। তাই বিরোধীদলও শিক্ষা ক্ষেত্রে সমালোচনা করতে পারছে না। মৌলভীবাজার জেলার মধ্যে ৭টি স্কুলের মধ্যে ৪টি স্কুলই আমার নির্বাচনী এলাকায় করেছি এগুলো হলো পৃথিমপাশা ইউনিয়নের সন্মান ও কানিকিয়ারী, কর্মধা ইউনিয়নে দীঘলকান্দি এবং কমলগঞ্জ উপজেলার আলী নগর ইউনিয়নের কামুদপুরে। ৩ টি স্কুল প্রক্রিয়াধীন এবং ভবিষ্যতে আরও স্কুল নির্মাণ করা হবে।
তিনি গতকাল ১৭ এপ্রিল বুধবার কুলাউড়ার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের কানিকিয়ারী গ্রামে তাদেরই পারিবারিক জমিতে দেয়া কানিকিয়ারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩৭ লক্ষ ৩৯ হাজার টাকায় এলজিইডি কর্তৃক নির্মিত ভবন ও কর্মধা ইউনিয়নে নব নির্মিত ভবন উদ্ভোধন উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। ইউপি সদস্য ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল মনাফের সভাপতিত্বে ও ময়নুল ইসলাম পংকির পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৃথিমপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কমরেড আব্দুল লতিফ, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শরিফ উল ইসলাম, উপজেলা এলজিইডি সহকারী ইঞ্জিনিয়ার রফিকুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা নবাব আলী তাকী খান, আওয়ামীলীগ নেতা নবাব আলী সাজ্জাদ খান, সাংবাদিক এম.এ.হামিদ, ইউপি সদস্য আব্বাছ আলী, আব্দুল মনির ও মাসুদ রানা আব্বাছ, শিক্ষিকা ছালেহা বেগম, যুবনেতা নজরুল ইসলাম, ঠিকাদার ফুজায়েল আহমদ, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মনফর মিয়া, পবিত্র কালামে পাক তেলাওয়াত করেন ক্বারী আব্দুর রহমান। পরে কর্মধা ইউনিয়নের দীঘলকান্দি গ্রামে নবনির্মিত স্কুল ভবন উদ্বোধন করেন। এসময় কর্মধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস শহীদ বাবুল এর সভাপতিত্বে ও সাইফুল ইসলাম সায়েদের পরিচালনায় অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নওয়াব আলী আব্বাছ খাঁন এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শরিফ উল ইসলাম, উপজেলা এলজিইডি সহকারী ইঞ্জিনিয়ার রফিকুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন ভূমি দাতা সাবেক ইউপি সদস্য মাসুক মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য মানিক মিয়া (মনই), হাজী এলাইছ মিয়া এবং প্রবাসী মাসুক মিয়া। এছাড়া বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস নিহারুন বেগম, আব্দুস সবুর, আব্দুল কাদির, আব্দুল মতিন, হাজি বাছির আলী, আব্দুল খালিক, সাবেক ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। মানপত্র পাঠ করেন সাংবাদিক ময়নুল ইসলাম মছলু। কোরআন তেলাওয়াত করেন মুজাহিদ আহমদ।