শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘ব্লাসফেমি’ বাংলাদেশকে বিভক্ত করছে : আল-জাজিরা



aljazeera

ডেস্ক রিপোর্ট : যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনালে অভিযুক্তদের বিচারের দাবিতে গত ২ মাস ধরেই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার রাজপথে হাজার হাজার লোক বিক্ষোভ করে আসছে। আর এ বিক্ষোভই একসময় অপরপক্ষে ধর্ম অবমাননাকারীদের মৃত্যুদন্ডের শাস্তি দাবিকারীদের সাথে ‘যুদ্ধাবস্থায়’ রুপ নেয়। 
শনিবার আর্ন্তজাতিক সংবাদ সংস্থা আল-জাজিরার এক রিপোর্টে এ কথা বলা হয। ‘বাংলাদেশস ব্লাসফেমি ডিভাইড’ শিরোনামের ঐ রিপোর্টে বলা হয়, এর আগে পাকিস্তান ও মিসরের ঘটনার মতো, ইসলামপন্থী ও ধর্মনিরপেক্ষতাবাদীদের এই বিরোধী অবস্থান বাংলাদেশকে সমস্যার মধ্যে ঠেলে দিয়েছে।
এতে বলা হয়, বাংলাদেশের সংবিধানে ধর্মঅবমাননাকারীর মৃত্যুদন্ডের শাস্তির কোন বিধান নেই। আর হেফাজতে ইসলাম এ আইনেরই বাস্তবায়ন চাচ্ছে। আর এ অভিযোগে সংগঠনটি শাহবাগে আন্দোলনকারী অনলাইন এক্টিভিস্টদের একটি অংশকে দায়ী করছে। যাদেরকে তারা নাস্তিক ব্লগার হিসেবে অভিযুক্ত করছে।
মিডিয়ার আক্রান্ত হওয়ার কথা উল্লেখ করে রিপোর্টে বলা হয়, গত মার্চ মাসে চলা অস্থিরতার জেরে একজন নাস্তিক ব্লগার নিহত হয় এবং অপর ৪ ব্লগারকে আটক করেছে পুলিশ। প্রধান সারির প্রচার মাধ্যমগুলোও এ অস্থিরতা থেকে রেহাই পায় নি। হেফাজতে ইসলাম সমর্থিত মিডিয়াগুলোকে ইতিমধ্যে বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার।
বিষয়টি সরকারের জন্য কঠিন উল্লেখ করে এতে বলা হয়, মীমাংসায় পৌঁছতে যাওয়াটা এখন বাংলাদেশ সরকারের জন্য খুবই কঠিন। একপক্ষ যখন ধর্মঅবমাননা করার জন্য অভিযুক্ত অপরপক্ষ সেই মুহূর্তে তাদের মৃত্যুদন্ডের দাবি জানাচ্ছে।