সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘১৯৭১ সালে বাংলাদেশ নামে কোনো দেশ ছিল না’



saka

নিউজ ডেস্ক :: বাংলাদেশের দুই রাজনীতিকের ফাঁসি কার্যকরের ঘটনায় ‘বাংরাদেশের প্রতিবাদ ও পাকিস্তানের উদ্বেগ’ সম্পর্কে জানতে ইসলামাবাদে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনারকে তলব করতে যাচ্ছে পাকিস্তান সরকার। বুধবার পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য শেখ আফতার আহমদ এ তথ্য জানান বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে পাকিস্তানি দৈনিক দা এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।
মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী এবং জামায়াতে ইসলামীর নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের ফাসি কার্যকরের পর পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর সমালোচনা করে একটি বিবৃতি দেয়। এর জবাবে ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানি হাই কমিশনারকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
পাকিস্তান সংসদে আফতাব আহমদ বুধবার অভিযোগ করেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৭৪ সালে ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত ত্রিপক্ষীয় চুক্তি লংঘন করেছেন। তিনি দাবি করেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ নামে কোনো দেশ ছিল না। কাজেই যে সময় যুদ্ধ হয় ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে। সে সময় যারা পাকিস্তানকে সহায়তা করেছিল তাদের বিচার করা অযৌক্তিক।
সংসদে বক্তৃতায় পাকিস্তানি ক্রিকেটার কাম রাজনীতিক ইমরান খানের দল পিটিআই’র সংসদ সদস্য শিরিন মাজারি প্রতিবাদ স্বরূপ ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানি হাই কমিশনার প্রত্যাহার করার জন্য পাকিস্তানি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
এই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এর আগে মঙ্গলবার পাকিস্তানের সংসদ সদস্যরা সর্বসম্মতভাবে বাংলাদেশের বিরোধী নেতাদের ‘ত্রুটিপূর্ণ যুদ্ধাপরাধের বিচারের’ সমালোচনা করেন এবং বিষয়টি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে তোলার জন্য পাকিস্তান সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।