শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হামলায় আইএসএর দায় স্বীকার, মানছে না ঢাকা



is

নিউজ ডেস্ক :: বাংলাদেশে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জঙ্গী সংগঠন আইএস দায় স্বীকার করলেও তা মানতে নারাজ সরকার। এমন শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে আনন্দবাজার পত্রিকায় উল্লেখ্য করা হয়। একটি মার্কিন সংগঠনের দাবি বাংলাদেশের বগুড়ার শিয়া মসজিদে কালকের হামলার দায় স্বীকার করেছে। ‘সাইট ইনটেলিজেন্স গ্রুপ’ নামে এই সংগঠনটি জঙ্গিদের ওয়েবসাইটগুলির নজরদার করছে বলে তাদের দাবি।
তবে বাংলাদেশ গোয়েন্দা পুলিশের ডেপুটি কমিশনার মনিরুজ্জামান জানিয়েছেন, আইএস হামলার দায় স্বীকারের কোনও স্পষ্ট প্রমাণ নেই। এর আগে আইএসের নামে কয়েকটি অপকর্মের দায় স্বীকার করে ফেইসবুকে বিবৃতি দিয়েছে। কিন্তু তদন্তে তার সবগুলিই ভিত্তিহীন প্রমাণিত হয়েছে। এবং সেই সব হুমকি দাতাকে আটক করা হয়েছে।
গোয়েন্দা কর্তা মনিরুজ্জামান আরো দাবি করেন, বাংলাদেশে আইএস-এর সংগঠন রয়েছে-এমন কোনও প্রমাণ এখনও মেলেনি। এক মাদ্রাসা ছাত্র-সহ দু’জনকে জেরা করছে পুলিশ। তারা আততায়ীদের সম্পর্কে পুলিশকে জানিয়েছে। পুলিশের কথা অনুযায়ী মোট তিন জন আততায়ী হামলা চালিয়েছে। এক জনের মাথায় টুপি ছিল। বাকি দু’জন চেক শার্ট ও প্যান্ট পরে এসেছিল।
সন্ধ্যায় নামাজের সময়ে বগুড়া শহর থেকে ১৭ কিলোমিটার দূরে শিবগঞ্জে এই শিয়া মসজিদে ঢুকে আততায়ীরা এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে পালিয়ে য়ায়। এই ঘটনায় মসজিদের মুয়াজ্জিন নিহত হন। গুলিবিদ্ধ হন ইমামসহ তিনজন। পাকিস্তানে শিয়া-সুন্নি বিবাদে প্রায়ই রক্ত ঝরলেও বাংলাদেশে এ ধরনের মসজিদে হামলার ঘটনা এই প্রথম। মহরমের আগের রাতে পুরনো ঢাকার হোসেনি দালানে শিয়াদের জমায়েতে বোমা হামলায় দু’জন প্রাণ হারান। বাংলাদেশে শিয়াদের ওপরে সেটাই প্রথম হামলা ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাল শিয়া মসজিদে হামলার নিন্দা করে বলেছেন, ‘‘সাচ্চা মুসলিমরা কখনও মসজিদে হামলা করে না!’’
কয়েক দিন আগেই তিনি অভিযোগ করেছেন, বাংলাদেশে আইএস রয়েছে প্রমাণ করার জন্য রাজনৈতিক চক্রান্ত চলছে। সরকারকে হেয় করার পাশাপাশি বাংলাদেশকে জঙ্গি অধ্যুষিত প্রমাণ করার জন্যই বার বার আইএসের নাম তুলে আনা হচ্ছে।
সূত্র: আনন্দবাজার