রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রেজিস্ট্রারি মাঠে হকার-দলিল লেখক সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ১৫



doweeeeee

স্টাফ রিপোর্টার ::
নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে হকার ও দলিল লেখকদের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৩২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪ টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দলিল লেখক হাসনাত, ইমন ও রাজনসহ কয়েকজন দলিল লেখক বিকেল পৌনে ৪টায় রেজিস্ট্রারি মাঠের পূর্ব পাশে বসা হকার মইন উদ্দিনের দোকানটি সরিয়ে নেওয়ার জন্য বলেন। এতে তিনি রাজি না হলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন লাঠি হাতে জড়ো হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় ঘন্টা খানেক দুপক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া করে। এতে লাঠি ও ইটপাটকেলের আঘাতে দুপক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। তবে, দুপক্ষের হাতে লাঠি থাকায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পারছিল না পুলিশ। একপর্যায়ে যখন উভয়পক্ষের লোকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা-পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখন হকার রকিবের লাঠি বাহিনীকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ গুলি ছোঁড়ে। এসময় পুলিশ ৩২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। প্রতিপক্ষের ছোঁড়া ইটপাটকেলের আঘাতে বন্দরবাজার ফাঁড়ি পুলিশ সদস্য রাজনসহ দু’পক্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হন।
সিলেট হকার কল্যাণ সমিতির সভাপতি রকিব আলী বলেন, কয়েকজন দলিল লেখক মইন উদ্দিনের দোকান সরিয়ে নেওয়ার জন্য বলেন। এ নিয়ে আলাপকালেই তাদের কয়েকজন দোকানে আঘাত করে গালাগালি করেন। এক পর্যায়ে তাদের আরো লোকজন এসে হকারদের উপর হামলা চালায়। করে লুটপাটও।
বাংলাদেশ দলিল লেখক সমিতি সিলেট শাখার সাধারণ সম্পাদক ময়নুল হক খান বলেন, গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য কিছু জায়গার ছেড়ে দিতে হকারদের বললে তারা অতর্কিত হামলা চালায় দলিল লেখকদের উপর। তিনি বলেন, শনিবারের মধ্যে হকার উচ্ছেদ ও এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হলে সারাদেশে দলিল লেখা বন্ধ করে দেওয়া হবে।
সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুহেল আহম্মদ বলেন, একটি অস্থায়ী দোকান সরানো নিয়ে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ ৩২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে।