বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আসলাম চৌধুরীর রিমান্ড শুনানি মঙ্গলবার ও ৬ জুন



Aslam-Chou-SM20160530123201

নিউজ ডেস্ক: রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর রিমান্ড আবেদনের শুনানি পিছিয়ে মঙ্গলবার (৩১ মে) এবং নাশকতার অপর দুই মামলায় আগামী ৬ জুন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার (৩০ মে) মামলা তিনটিতে রিমান্ডের আবেদনের শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারায় রিমান্ড শুনানির বিষয়ে উচ্চ আদালতে শুনানি মুলতবি থাকায় আসামিপক্ষে সময়ের আবেদন করেন আসলাম চৌধুরীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ হোসেন, গোলাম নবী ও মাজহারুল ইসলামের আদালত রিমান্ড শুনানি পিছিয়ে মঙ্গলবার ও ৬ জুন দিন ধার্য করেন। এর মধ্যে গুলশান থানায় দায়ের করা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় রিমান্ড শুনানি মঙ্গলবার ও বাকি দু’টিতে ৬ জুন অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে গত ২৪ মে মোসাদ কানেকশনে সরকার উৎখাতে ষড়যন্ত্রের সন্দেহের মামলায় সাতদিনের রিমান্ড শেষে আসলাম চৌধুরীকে কারাগারে পাঠানো হয়। ১৬ মে আসলাম চৌধুরী এবং তার ব্যক্তিগত সহকারী মো. আসাদুজ্জামান মিয়ার সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

সরকার উৎখাতে ষড়যন্ত্রের সন্দেহের মামলায় বলা হয়, আসলাম চৌধুরী গত ৫ মার্চ থেকে ৯ মার্চ পর্যন্ত ভারতে অবস্থানকালে আইনানুগভাবে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ সরকারকে উৎখাতের জন্য বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক বহিভূত রাষ্ট্র ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের এজেন্ট মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। যার কিছু ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আসামিরা সরকারকে অবৈধভাবে উৎখাতের জন্য দেশে সন্ত্রাস, নাশকতা ও বিদ্বেষ সৃষ্টির উদ্যোগ গ্রহণ করেন যা দেশের অখণ্ডতা, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকিস্বরূপ এবং রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

এরপর তাকে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় দায়ের হওয়া দু’টি নাশকতার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। পরে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা হয় রাষট্রদ্রোহের মামলাটি।