সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজার সদর থানার একাটুনা ইউনিয়নে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে পুলিশ-জনতা সমাবেশ-২০২০ অনুষ্টিত হয়।




জেসমিন মনসুর.
ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শনিবার ১৭ই অক্টোবর দেশব্যাপী ৬৯১২টি বিট অফিসে এক সাথে সমাবেশ পালন করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। তারই ধারাবাহিকতায় দেশব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসাবে একযোগে সকাল ১০ টায় জেলা পুলিশের আয়োজনে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার সকল বিট পুলিশিং এলাকায় ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে পুলিশ-জনতা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের আয়োজনে সদর থানার ৬নং একাটুনা ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে পুলিশ-জনতা সমাবেশ ও র্যালি অনুষ্ঠিত হয়।
মৌলভীবাজার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ ইয়াছিনুল হক এর সভাপতিত্বে ও পুলিম পরিদর্শক (তদন্ত)জনাব পরিমল চন্দ্র দে এর পরিচালনায় সদর উপজেলার ৬নং একাটুনা ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব ফারুক আহমেদ পিপিএম ( বার) মহোদয় এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল)জনাব জিয়াউর রহমান।একাটুনা ইউপি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান,প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক পান্না দত্ত,উত্তরমোলাইম মল্লিক সরাইল আলিম মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক সামছুল ইসলাম, একাটুনা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন অব মৌলভীবাজার এর সভাপতি একাটুনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সমাজসেবক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ. মৌলভীবাজার সম্মিলিত সামাজিক উন্নয়ন পরিষদের সাধারন সম্পাদক আলিম উদ্দিন হালিম , একাটুনা ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম তরফদার ইমন হাফিজ মাওঃ মইনুল হক চৌধুরী, উত্তরমুলাইম মাদ্রাসার সুপার মাওঃ শামছুল ইসলাম, কলেজ ছাত্রী মারিয়া আক্তার পপি, স্কুল ছাত্রী আয়শা জান্নাত ; ইউপি সদস্য সালমা আক্তার, উত্তরমুলাইম মাদ্রাসার সুপার মাওঃ শামছুল ইসলাম, কলেজ ছাত্রী মারিয়া আক্তার পপি,স্কুল ছাত্রী আয়শা জান্নাত। উক্ত সমাবেশে মৌলভীবাজার জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব ফারুক আহমেদ পিপিএম ( বার) মহোদয় তার বক্তব্যে বলেন, ধর্ষনের শাস্তি এখন মৃত্যুদন্ড, নারীদের সাথে সহিংসতা করে কেউ পার পাবে না।ধর্ষনের মত যে কোনো অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে প্রমান না হওয়া পর্যন্ত কাউকে দোষী বলা যাবে না।এছাড়া নারীরা নির্যাতন ও ধর্ষন প্রতিরোধে প্রতিটি পরিবার এবং সমাজের সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সচেতন ও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।