রবিবার, ১৩ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে ভার্চুয়াল আলোচনা ও দোয়ার মাহফিল অনুষ্ঠিত।



…মকিস মনসুর.
২০০৮ সালের ১১ই জুন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা ও বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দেশরত্ন, জননেত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস। লাখো জনতার আন্দোলনের চাপে পড়ে তৎকালীন অবৈধ সেনা সমর্থিত সরকার দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস কারাভোগের পর ২০০৮ সালের ১১ জুন সংসদ ভবন চত্বরে স্থাপিত বিশেষ কারাগার থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হন।
জননেত্রী,দেশরত্ন শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে বিনম্র শ্রদ্ধা সহ জননেত্রীর সুসাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দেশরত্ন শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা ও দোয়ার মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে।
যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি ৭১ এর বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান মাহমুদ শরীফ এর সভাপতিত্বে এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক এর পরিচালনায় অনুষ্টিত ভার্চুয়াল সভায় দোয়া পরিচালনা করেন সেন্ট্রাল লন্ডনের ব্রিকলেন জামে মসজিদের খতিব মাওলানা এম নজরুল ইসলাম.
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৫ ই আগষ্টে নিহত সকল শহীদান ও জাতীয় চার নেতা সহ মহাণ মুক্তিযোদ্ধে নিহত সকল শহীদানদের মাগফেরাত কামনা সহ , জননেত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানার জন্য দোয়া করার সাথে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির জন্যও দোয়া করা হয়। উক্ত সভায় যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও অংগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও বৃটেনের বিভিন্ন শহর থেকে বিশিষ্টজনেরা অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন।
যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক সহ সকল বক্তারা বলেন তথাকথিত এক/এগারোর সরকার দেশে বিদেশে জনগণের আন্দোলনের মূখে সেদিন শেখ হাসিনাকে নয়, গণতন্ত্রকে মুক্তি দিয়েছিল। কারণ শেখ হাসিনার মুক্তি মানে গণতন্ত্রের মুক্তি। যার ফলে বাংলাদেশ আজকে বিশ্বের দরবারে একটি উন্নয়নশীল, মর্যাদাশীল দেশ।
বক্তারা আর ও বলেন সত্য চিরন্তন সত্য সত্যকে কখনো মিথ্যা দিয়ে ঢেকে রাখা যায় না ; সত্য চিরকালই সত্য থেকে যায় । মিথ্যা দিয়ে সাময়িক সত্যকে চাপা দিলেও যথা সময়ে সেই সত্য মিথ্যাকে ভেদ করে সত্য আরও বেশী করে বিকশিত হয় । আবার বাঙালি জাতি চির দুর্বার, চির দুর্মর। যুগে যুগে তারা অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার থেকেছে। যার প্রমাণ ১/১১’র তে দেখিয়েছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা রত্ন ম্যাদার অব ইউমিনিটি মানণীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী জননী, শেখ হাসিনা দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস কারাভোগের পর ২০০৮ সালের ১১ জুন সংসদ ভবন চত্বরে স্থাপিত বিশেষ কারাগার থেকে মুক্তির মধ্য দিয়ে হয়েছিলো সত্যের জয়. ঐদিন ছিলো অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরার দিন। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের হয়েছিলো মুক্তি। উল্লেখ্য ২০০৭/ ৮ সালে তৎকালীন ১/১১ সরকার ধারা মিথ্যা মামলায় জননেত্রী শেখ হাসিনা কারাগারে গেলে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ. যুবলীগ সহ অংগ ও সহযোগী সংগটন গুলো তুমুল আন্দোলন গড়ে তুলে।
দেশ এবং বিদেশের আন্দোলনের মূখে ২০০৮ সালের ১১ জুন দীর্ঘ ১১ মাস কারাভোগের পর জননেত্রী শেখ হাসিনা কারগার থেকে মুক্তি লাভ করেন। সেই থেকে এই দিনটি একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন হিসাবে পরিলক্ষিত হয়।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত