বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পুর্নাঙ্গ প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রকাশের দাবীতে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন, ইউকে-এর ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত.।




মকিস মনসুর.
অতি সম্প্রতি মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় কর্তৃক বিতর্কিত ও অসম্পূর্ণ প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রকাশের প্রতিবাদে এবং সবার নিকট গ্রহণযোগ্য প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধার একটা সম্পুর্ন তালিকা প্রণয়ন ও প্রকাশের দাবিতে বিলেতের সবচেয়ে পুরাতন কমিউনিটি অর্গানাইজেশন বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন, ইউকে-এর ভার্চুয়াল সভা গত ২৮শে জুন, সোমবার স্থানীয় সময় বিকাল ৫ টায় অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোহাম্মদ হরমুজ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম।
ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও বিলেতে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক অধ্যাপক আবুল হাশেম, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব জালাল উদ্দিন, বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন এর সাবেক সাধারন সম্পাদক আপ্তাব আলী, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এম এ রহিম সিআইপি, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সাজ্জাদ মিয়া এমবিই ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী সহ আরও যারা বক্তব্য রাখেন তারা হলেন, জামিলুর রহমান শিপার, সৈয়দ এনামুল ইসলাম, এ কে এম ইয়াহিয়া, শাহ ফারুক আহমদ, আফজাল হোসেন সিদ্দিক মিয়া, শায়েস্তা মিয়া, তানভির আহমেদ, এম এ সারব আলী, তারিফ আহমেদ, সুজাত মনসুর, নজরুল ইসলাম, শওকত আহমেদ এমবিই, আলিমুজ্জামান, এম এ রউফ, মকদ্দুস আলী, আনসারুল হক, মোহাম্মদ মকিস মনসুর,
শফিক আহমেদ, আফসার খান সাদেক, মাসুদ আহমেদ, জামাল খান.আবুল কালাম আজাদ, ও বাবুল খান সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী কর্তৃক প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধাদের বিতর্কিত ও অসম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ না করে একটি বিতর্কমুক্ত ও পুর্নাঙ্গ তালিকা প্রণয়ন করার জন্য সময় বর্ধিত করায় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মন্ত্রী আ ক ম মোকাম্মেল হকে অভিনন্দন জানানো হয়। সভায় যুক্তরাজ্য আওয়ামী, বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ হাইকমিশন কমিউনিটির সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে সবার নিকট গ্রহণযোগ্য ও পুর্নাঙ্গ তালিকা তৈরির জন্য সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করার আহ্বানও জানানো হয়।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনকে উদ্দ্যোগ গ্রহনের দাবি করা হয়। এছাড়া কোন সময় নির্ধারণ না করে চলমান প্রক্রিয়া হিসাবে তালিকাভূক্তির বিষয় উন্মুক্ত রাখার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবী করা হয়।