বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্কে দুই বাংলাদেশি নারী সোমা এবং শাহানা ইতিহাস গড়লেন–।




হাকিকুল ইসলাম খোকন ,
যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধিঃশাহানা হানিফ ও সোমা সাঈদ। দুজনই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। রীতিমতো ইতিহাস গড়েছেন তাঁরা। নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে প্রথম কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এবং মুসলিম নারী হিসেবে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন শাহানা হানিফ। ব্রুকলিনের ডিস্ট্রিক্ট ৩৯ থেকে কাউন্সিলওম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। আর কুইন্সের সিভিল কোর্টের বিচারপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন সোমা সাঈদ।খবর বাপসনিউজ।
বেসরকারি ফল অনুযায়ী এরই মধ্যে বিজয়ের বার্তা পেয়ে গেছেন দুই নারী। মঙ্গলবার ২ নভেনর দিনভর ভোট দিয়েছেন নিউইয়র্কের মানুষ। রাত ১০টার আগেই ফল পরিষ্কার হয়ে যায়। গুরুত্বপূর্ণ এ নির্বাচনে দুই প্রার্থীর বিজয়ে নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে উৎসব শুরু হয়েছে। বিশ্ব রাজধানীখ্যাত নিউইয়র্কের কাউন্সিলম্যান পদটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচনে এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কেউ দলীয় মনোনয়নও নিশ্চিত করতে পারেনি। একই সঙ্গে কুইন্স কাউন্টির বিচারপতির মতো অত্যন্ত সম্মানজনক এই পদেও বাংলাদেশি একজন প্রার্থী বিজয়ী হলেন। বিজয়ী হওয়ার খবর পেয়ে শাহানা হানিফ এবং সোমা সাঈদের নির্বাচনী শিবিরেও উৎসবের আমেজ।
ব্রুকলিনে নিজের নির্বাচনী কার্যালয়ে দেওয়া বক্তব্যে শাহানা হানিফ বলেন, একজন বাংলাদেশি হিসেবে, একজন মুসলিম নারী হিসেবে আমার বিজয় বড় একটি মাইলফলক। আমি বিজয়ী হয়েছি সাধারণ মানুষের পক্ষে লড়াই করার জন্য। তাদের জন্য কাজ করার মধ্য দিয়ে সেই লড়াই চালিয়ে যাব।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পত্রিকা নিউইয়র্ক টাইমসসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম শাহানা হানিফের বিজয়ের সংবাদ অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করেছে। নিউইয়র্ক টাইমস লিখেছে, ‘একজন মুসলিম নারী হিসেবে প্রথমবারের মতো নিউইয়র্কের কাউন্সিলওম্যান হয়ে ইতিহাস গড়লেন শাহানা হানিফ।’ এদিকে, বিজয়ী হওয়ার পর সোমা সাঈদ দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘এই জয় আমার একার নয়। পুরো অভিবাসী সমাজের জয়। বাংলাদেশি হিসেবে আমি গর্বিত। এখন ন্যায়ের পক্ষে নিজের প্রতিশ্রুতি পূরণে কাজ করে যেতে চাই।’