রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আনোয়ার শাহজাহানের ‘হিস্ট্রি অ্যান্ড হেরিটেইজ অব গোলাপগঞ্জ’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন।



গত ৫ সেপ্টেম্বর লেখক ও সাংবাদিক আনোয়ার শাহজাহান রচিত ‘হিস্ট্রি অ্যান্ড হেরিটেইজ অব গোলাপগঞ্জ’ গ্রন্থের মোড়ক করা হয়। সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ যুক্তরাজ্য আয়োজিত ১০ম বাংলাদেশ বইমেলা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক উৎসবে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট লেখক ডা. হাফিজ উদ্দীন আহমদ, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ান গৌছ সুলতান, হোসনে আরা মতিন, গবেষক ফারুক আহমদ, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক স্পিকার আহবাব হোসেন, সম্মিলিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ যুক্তরাজ্য এর সভাপতি ময়নূর রহমান বাবুল, সাধারণ সম্পাদক একেএম আব্দুল্লাহ, গোলাপগঞ্জ উপজেলা সোশ্যাল ট্রাস্ট ইউকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুল বাছিত প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন কবি নাজ নাঈম।

‘হিস্ট্রি অ্যান্ড হেরিটেইজ অব গোলাপগঞ্জ’ গ্রন্থটি তার আনোয়ার শাহজাহানের বহুপঠিত গোলাপগঞ্জ উপজেলার ওপর লিখিত প্রথম ইতিহাস গ্রন্থ ‘গোলাপগঞ্জের ইতিহাস ও ঐতিহ্য’ গ্রন্থের ইংরেজি ভার্সন। এটি ‘বাংলাদেশ বইমেলা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব, লন্ডন, ২০২২’ উপলক্ষে প্রকাশ করা হয়েছে। এই গ্রন্থ বহির্বিশ্বে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা বাঙালি নতুনপ্রজন্মকে যে শিকড়ের সন্ধান দেবে, শিকড়সন্ধানী করে তুলবে তা বলাই বাহুল্য।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার প্রথম লিখিত ইতিহাসগ্রন্থ ‘গোলাপগঞ্জের ইতিহাস ও ঐতিহ্য’ ১৯৯৬ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। ২০১৫ সালে বাংলা‌ একাডেমি বইমেলায় এটির প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়।

গোলাপগঞ্জের ইতিহাস ও ঐতিহ্য গ্রন্থে ব্রিটিশ শাসনামল থেকে হাল আমল পর্যন্ত ইতিহাসের কালখন্ডে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন, নানকার আন্দোলন, খেলাফত আন্দোলন, দেশভাগ, ভাষার লড়াই, স্বাধীনতাযুদ্ধ, স্বাধীনতা-উত্তর রাজনীতির নানা বাঁক পরিবর্তন, সাহিত্যসাধনা, শিক্ষার প্রসার, সাংবাদিকতা, ধর্মচর্চা, বিলাতে গোলাপগঞ্জবাসীর কমর্কান্ড ইত্যাদি বিষয়ে সন্নিবেশ ঘটেছে গ্রন্থটিতে। এটি কেবল গোলাপগঞ্জ উপজেলার ইতিহাসই নয়, একই সাথে আমাদের জাতীয় ইতিহাসের জন্য অপরিহার্য এক তাথ্যিক গ্রন্থবিশেষ।

হিস্ট্রি অ্যান্ড হেরিটেইজ অব গোলাপগঞ্জ গ্রন্থটি যুক্তরাজ্যের এসসিএইচএ থেকে প্রকাশিত হয়েছে।